মির্জাগঞ্জে অবৈধভাবে জমি দখলের প্রতিবাদে মানববন্ধন

উত্তম গোলদার উত্তম গোলদার

মির্জাগঞ্জ(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৮:০০ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৫, ২০২১ | আপডেট: ৮:০০:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৫, ২০২১

পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে পূর্ব সুবিদখালী গ্রামের লোকনাথ মন্দির সংলগ্ন সংখ্যালঘুদের জমি দখলের প্রতিবাদে মানববন্ধন করছে উপজেলা হিন্দু-বৈদ্য-খ্রিষ্টান ঐক্য পরষদের নেতারা।

গতকাল সোমবার সকাল এগারোটায় মির্জাগঞ্জ প্রেসক্লাবে সামনে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, মির্জাগঞ্জ উপজেলা হিন্দু-বৈদ্য-খ্রিষ্টান ঐক্য পরষদের সভাপতি শ্রী বিজয় কৃষ্ণ শীল, সাধারন সম্পাদক শ্রী দিলিপ চন্দ্র দেবনাথ, সুবিদখালী লোকনাথ মন্দিরের প্রতিষ্টাতা শ্রী জীবনানন্দ দাস কানাই,ভুক্তভোগী পরিবারের সুমা রানী ও তার মা সেফালী রানী প্রমূখ।

ভুক্তভোগী পরিবার বলেন, উপজেলা সদরের সুবিদখালী লোকনাথ ভক্ত সেবাশ্রম সংলগ্ন আমাদের পৈত্রিক জমিতে আমাদের ছোট একটা ঘর ছিলো এবং এর পাশেই মন্দিরের অনুষ্টান চলাকালীন সময়ে ভক্তবৃন্দ বসে অনুষ্টান উপভোগ করত। এই জমি নিয়ে পার্শ্ববর্তী মেত-মো. মুজাফ্ফর আলী মৃধার স্ত্রী রাবেয়া বেগম ও তার পুত্র আশ্রফ আলী মৃধাদের সাথে দীর্ঘদিন বিরোধ চলছিলো। এই বিরোধী জমি নিয়ে ২০১২ সালে মির্জাগঞ্জ থানায় অভিযোগ দিলে থানা পুলিশের সহায়তা আমরা জমি বুঝে পাই ও ঘর নির্মান করি। চলতি বছরের ৪ জানুয়ারি রাবেয়া বেগম বিরোধীয় জমির মাটি কাটতে গেলে সংখ্যালঘু পরিবার তাতে বাঁধা প্রদান করি।

এ ঘটনার পর ওই রাতেই রাবেয়া বেগম বাদি হয়ে সংখ্যালঘু পরিবার শ্রী পরিমল মিস্ত্রীসহ স্ত্রী,বৃদ্ধা মাকে আসামী করে ৬ জনের নামে মির্জাগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার ঘটনা জানতে পেরে আমরা বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র আশ্রয় নেই। এ সুযোগে রাবেয়া বেগম ও তার লোকজন এই রাতেই আমাদের জমি দখল করে রান্নাঘর, মন্দির সংলগ্ন লেট্রিন নির্মান করে টিনের বেড়া দিয়েছেন। অসহায় পরিবার তাদের পৃতি সম্পত্তি উদ্ধারের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাজে দাবী জানাই।

এব্যাপারে মুঠোফোন রাবেয়া বেগম বলেন, এই জমি পরিমল মিস্ত্রী’র পিতা সিদাম মিস্ত্রির কাছ থেকে আমারা ক্রয় করেছি। তাই আমাদের জমিতে আমরা বেড়া দিয়েছি।