মির্জা অনুসারীদের গুলিতে উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক গুলিবিদ্ধ

মানিক ভূঁইয়া মানিক ভূঁইয়া

নোয়াখালী প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৭:৪৮ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৯, ২০২১ | আপডেট: ৭:৪৮:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৯, ২০২১

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান নুরনবী চৌধুরী (৬৬) গুলিব্ধি হয়েছেন। তিনি সিরাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এবং একই এলাকার মৃত ফজলের রহমানের ছেলে। অপর দিকে কোম্পনীগঞ্জ থানার ওসি তদন্ত রবিউল কে বদলী করে পুলিশ লাইনে হাস্তন্তার করা হয়েছে। পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন বিষয় নিশ্চিত করেন।

সোমবার (১৯ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বসুরহাট পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের মাস্টার পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

সেতুমন্ত্রীর ভাগনে উপজেলা আ.লীগ সমর্থিত বলয়ের নেতা ফখরুল ইসলাম রাহাত আহত নুরনবী চৌধুরীর উদ্ধৃতি দিয়ে জানান, কাদের মির্জার নির্দেশে তার অনুসারী বসুরহাট পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সন্ত্রাসী কেচ্ছা রাসেল আজ সকালে অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে পৌরসভার মাস্টার পাড়া এলাকায় ওঁৎপেতে ছিল। নুরনবী চৌধুরী মোটরসাইকেল যোগে নিজ বাড়ি থেকে কয়েকজন অনুসারী নিয়ে বসুরহাট বাজারে আসার পথে পৌরসভার মাস্টার পাড়া এলাকায় পৌঁছলে আগে থেকেই ওঁৎপেতে থাকা কেচ্ছা রাসেল ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা তাকে লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়লে তিনি দুই পায়ে গুলিবিদ্ধ হন। পরে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় সন্ত্রাসী কেচ্ছা রাসেল ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা তাকে পিটিয়ে দুই পা ভেঙ্গে দেয়। এক পর্যায়ে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা পাঠানো হয়েছে।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মো. সেলিম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, তিনি ডান পায়ের এবং বাম পায়েল হাটুর নিচে দুই জায়গায় গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। গুলির আঘাতের চিহৃ অনেক ভিতরে চলে গেছে।

নোয়াখালীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শামীম আহমেদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে।