সিইসি আসলে ‘মুখ ফসকে’ সত্যটি বলে ফেলেছেন : রিজভী

প্রকাশিত: ৬:৪০ অপরাহ্ণ, মার্চ ৯, ২০১৯ | আপডেট: ৬:৪২:অপরাহ্ণ, মার্চ ৯, ২০১৯

ইভিএম প্রসঙ্গে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের বক্তব্যের সূত্র ধরে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, “মিডনাইট নির্বাচনে আসল সত্যটি এখন সিইসি মুখ ফসকে বলে ফেলেছেন। জনগণের ভোটাধিকার কেড়ে নেয়া দস্যুতারই নামান্তর। ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে জনগণের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়ে সেই দস্যুতারই আচরণ করেছেন সিইসি।”

আজ শনিবার দুপুরে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে রুহুল কবির রিজভী এ অভিযোগ করেন।

গতকাল আগারগাঁওয়ে নির্বাচন প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউটে এক প্রশিক্ষণ কর্মশালায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা বলেছিলেন ইভিএমে ভোট হলে আগের রাতে ভোটের বাক্স ভরে রাখার সুযোগ থাকবে না। তিনি বলেছিলেন, দূর দূরান্ত এলাকায় সকাল বেলা তো ব্যালট পেপার ও ব্যালট বাক্স নিয়ে যাওয়া যায় না, ইভিএম থাকলে রাতে আর ব্যালট ভর্তি করার সুযোগ থাকবে না।

সিইসির বক্তব্যের সমালোচনা করে রিজভী বলেন, মিডনাইট নির্বাচনের আসল সত্য এখন সিইসি মুখ ফসকেই বলে ফেলেছেন। জনগণের ভোটাধিকার কেড়ে নেয়া দস্যুতার নামান্তর। আর সেই আচরণ করেছেন সিইসি।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘ইভিএম চালু হলে নাকি ভোটের আগের রাতে ব্যালট বাক্স ভর্তির ঝুঁকি কমবে-এমন কথা বলেছেন সিইসি। জনগণের হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে কমিশনে ইভিএম মেশিন প্রকল্প অপরিহার্যতা প্রতিপাদন করার জন্যই কি সিইসি ২৯ ডিসেম্বর রাতে ব্যালট বাক্স পূর্ণ করার নির্দেশ দিয়েছিলেন?’

রিজভী বলেন, প্যান্ডোরার বাক্স থেকে এখন আসল ঘটনাগুলো বের হতে শুরু করেছে। থলের বিড়ালকে আর বেশিদিন আটকে রাখতে পারলেন না প্রধান নির্বাচন কমিশনার। আসলে সত্যকে ঢেকে রাখলেও তাতে লাভ হয় না। সত্য কুহেলিকার আচ্ছাদন ভেদ করে বের হবেই।

‘একটি প্রকল্পের যথার্থতা প্রমাণের জন্যই আপনি কি সারাদেশের ভোটারদের ভোটাধিকার কেড়ে নিলেন? আপনার ব্রেইন চাইল্ড প্রতিষ্ঠার জন্য জনগণের আমানতকে আপনি কেড়ে নিলেন। আজ আপনার এবং আপনার সহচরদের মুখ দিয়েই আসল সত্যটি প্রকাশিত হতে শুরু করেছে। অথচ আপনি ৩০ ডিসেম্বরের রাত থেকেই সুষ্ঠু নির্বাচনের ঝুড়ি ঝুড়ি গালগল্প শুনিয়েছেন মানুষকে।’

সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য ইভিএম নয়, গণতান্ত্রিক মানসিকতা থাকা দরকার বলে সংবাদ সম্মেলনে মন্তব্য করেন রিজভী।