মেয়ের আত্মজীবনীতে ‘নিষ্ঠুর’ বাবা ছিলেন স্টিভ জবস!

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:৩১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৭, ২০১৮ | আপডেট: ৭:৩১:অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৭, ২০১৮

অ্যাপলের সহ প্রতিষ্ঠাতা স্টিভ জবসের মেয়ে লিসা ব্রেনান তার নিজের জীবনে তার বিশ্ববিখ্যাত বাবার সম্পর্ক নিয়ে স্মৃতিকথা লিখেছেন। এবং এতে স্টিভ জবসকে নিষ্ঠুর মনে হয়েছে।

লিসা ব্রেনান জবস প্রকাশিত ‘স্মল ফ্রাই’ নামক আত্মজীবনীতে যেসব লেখা রয়েছে তা নিয়ে নিউ ইয়র্ক টাইমসে এক সাক্ষাৎকার দেন লিসা।

‘স্মল ফ্রাই’ নামক আত্মজীবনীতে লিসা একটি অংশে লিখেছেন, একবার তার মা ক্রিসান ব্রেনান সন্তান ও তাদের জন্য একটি বাড়ি কিনে দেওয়ার কথা বলেন। এরপর জবস এই কথার সায় দিয়ে একটি বাড়ি কিনেন তবে তা তার বাবার নিজের জন্য এবং নতুন সঙ্গী লরেন পাওয়েল এর জন্য।

বহু বছর ধরেই জবসের সঙ্গে তার মেয়ের খারাপ সম্পর্কের বিষয়টি অনেকেরই জানা। প্রথমে লিসাকে নিজের সন্তান বলে স্বীকার করেননি স্টিভ জবস। এমনকি বিষয়টি নিয়ে প্রথম স্ত্রী ক্রিসানের সঙ্গে আদালত পর্যন্ত গড়ায়। স্টিভের বাড়ি ছেড়ে চলে যান ক্রিসান। ডিএনএ পরীক্ষার পর জানা যায়, স্টিভই লিসার বাবা। কিন্তু তার পরও লিসাকে নিজের মেয়ে মানতে চাননি স্টিভ।

লিসার আত্মজীবনীর তিনি তার বাবাকে খুব ভয় পেতেন বলে লিখেছেন। মাঝে মধ্যেই খুব অদ্ভুত আচরণ করতেন স্টিভ জবস। কেমন অদ্ভুত আচরণ, সে কথা বলতে গিয়ে লিসা লিখেছেন, ‘বাবার (স্টিভ জবস) সঙ্গে তখন লরেন পাওয়েলের বিয়ে হয়েছে। সেদিন আমি আর লরেন ড্রইং রুমে বসে আছি। বাবা ঘরে ঢুকে লরেনকে অত্যন্ত ঘনিষ্ঠভাবে চুমু খেতে শুরু করলেন। খুব অস্বস্তি হচ্ছিল। কিন্তু যেই উঠতে যাচ্ছি, বাবা বলল, তুমি থাকো। তুমি এখন আমাদের পরিবারের অংশ।

যদিও লিসার আত্মজীবনীর এসব অংশ নিয়ে জবসের দ্বিতীয় স্ত্রী লরেন পাওয়েল এক বিবৃতে জানিয়েছেন, লিসা আমাদের পরিবারের অংশ। তার এই বই পড়ে আমরা দুঃখিত। যদিও লিসার ভাষায় সেসময়ের বর্ণনা আর সেসময়টা নাটকীয় পার্থক্য রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ‘জবস লিসাকে খুবই ভালোবাসতেন এবং লিসার শৈশবে তার সঙ্গে না থাকার জন্য অনুশোচনাও করতেন জবস।’

লিসার দাবি,খরচের ব্যাপারেও খুব কড়া ধাতের ছিলেন স্টিভ। লিসার ঘরে ‘হিটিং মেশিন’ বসাননি তিনি। শীতকালে ঠাণ্ডায় কাঁপত লিসা। স্টিভ নাকি মেয়েকে বলেছিলেন, সব রকম পরিস্থিতিতে নিজেকে তৈরি রেখো।

যদিও লিসা জানান, তিনি এসব কিছুর পরেও তার বাবা স্টিভ জবসকে ক্ষমা করে দিয়েছেন। এমনকি আত্মজীবনীতে তার বাবার সঙ্গে সম্পর্কের কিছু ভালো মুহূর্তও তুলে ধরেছেন।

স্টিভ জবসের জীবনের শেষ কয়েক বছর বিশাল পরিবর্তন এসেছিল। লিসা লিখেছেন, ‘ক্যান্সার তখন বাবাকে গ্রাস করে নিয়েছে। বাবা ওই সময় আমার কাছে বছরের পর বছর আমার জন্মদিন ভুলে যাওয়ার জন্য, আমার খোঁজ-খবর না নেওয়ার জন্য বারবার ক্ষমা চাইতেন।

সূত্র: বিজনেস ইনসাইডার