যশোর শাহাদৎ হত্যা মামলায় হারুনের যাবজ্জীবন, জাকির খালাশ

শহিদ জয় শহিদ জয়

যশোর প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৯:১৮ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৭, ২০২১ | আপডেট: ৯:১৮:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৭, ২০২১

যশোর সদর উপজেলার বাহাদুরপুর গ্রামের জয়নাল আবেদীনের ছেলে শাহাদৎ হত্যা মামলার আসামি হারুন অর রশিদের যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ছয় মাসের কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। আসামি হারুন একই গ্রামের ওহাব মোল্যার ছেলে।

এছাড়া একই মামলার অপর আসামি আড়পাড়া গ্রামের হাসেম আলীর ছেলে জাকির হোসেনকে খালাশ প্রদান করা হয়েছে। বুধবার স্পেশাল জজ মোহাম্মদ সামছুল হক এ আদেশ দেন।

মামলার অভিযোগে যানা যায়, ২০০০ সালের ২৯ আগষ্ট রাত ৯ টার দিকে শাহাদত বাহাদুরপুর হাই স্কুলের সামনে একটি চায়ের দোকানে চা খেয়ে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হন। রাস্তার উপরে উঠতেই অজ্ঞাতরা এসে শাহাদতের উপর হামলা চালায়। এসময় ধারালো অস্ত্র দিয়ে শাহাদতের মাথা ও গলায় একাধিক কোপ দেয়। সেসময় শাহাদত দৌঁড়ে নাজির মতিয়ার রহমানের বাড়ির ওঠানে এসে মাটিতে লুটে পরে। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তার শাহাদতকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে এ ঘটনায় ৩০ আগষ্ট নিহত শাহাদতের দুলাভাইনতুন উপশহর এলাকার মৃত মেহের আলীর ছেলে ফজলুর রহমান বাদী হয়ে অজ্ঞাত আসামি করে কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা লিয়াকত আলী ওই দুইজনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট জমাদেন। ১০ জনের সাক্ষ্যগ্রহন শেষে বুধবার এ মামলার রায় ঘোষণা করে আদালত। হারুন অর রশিদকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন ও মুক্তি দেয়া হয় জাকিরকে। এসময় স্পেশাল পিপি সাজ্জাদ মোস্তফা রাজা উপস্থিত ছিলেন।