যুক্তরাজ্য ফেরত আক্রান্তদের মধ্যে করোনার নতুন ধরন আছে কিনা, যাচাই করা হবে

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:৪৮ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৬, ২০২১ | আপডেট: ৭:৪৮:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৬, ২০২১

যুক্তরাজ্য থেকে আসা যে যাত্রীদের শরীরে করোনাভাইরাসের নতুন ধরন রয়েছেন কিনা, সেটি পরীক্ষা করে দেখবেন বিশেষজ্ঞরা। এজন্য ঢাকা থেকে রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইন্সটিটিউটের একটি গবেষক দল সিলেটে পৌঁছেছে।

সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মণ্ডল বিবিসি বাংলাকে বলেছেন, ”গতকাল এই যাত্রীদের পজিটিভ রিপোর্ট পাওয়ার পর আমরা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং আইইডিসিআরের সঙ্গে কথা বলেছি। এর মধ্যেই আইইডিসিআর সাত জনের একটি টিম পাঠিয়ে দিয়েছে।”

”তারা চার পাঁচদিন থাকবে। তাদের রোগের ধরন নিয়ে তারা পরীক্ষানিরীক্ষা করবেন।”

কর্মকর্তারা বলছেন, যুক্তরাজ্যে করোনাভাইরাসের যে নতুন ধরনটি শনাক্ত হয়েছে, এই যাত্রীদের ভেতর সেটা রয়েছে কিনা, তাও পরীক্ষা করে দেখবেন আইইডিসিআরের কর্মকর্তারা।

এই পুরো সময়ে যুক্তরাজ্য ফেরত এই যাত্রীদের কোয়ারেন্টিনে রাখা হবে।

বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, গত সেপ্টেম্বর মাসে যুক্তরাজ্যে শনাক্ত হওয়া ভাইরাসের ধরনটি অন্তত ৭০ শতাংশ বেশি হারে বিস্তার ঘটাতে পারে।

বেশ কয়েকটি দেশে দ্রুত হারে ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাসের নতুন ধরনটি।

ধারণা করা হয় যে, করোনাভাইরাসের এই নতুন ধরনটি আগেরটির তুলনায় দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে পারে। তবে সেটি আগের চেয়ে বেশি বিপজ্জনক নয় বলেই মনে করা হচ্ছে।

ডা. মণ্ডল জানান, এই ব্যক্তিদের দ্বিতীয় দফায় পরীক্ষা করার জন্য আবার নমুনা পাঠানো হয়েছে।

গত ২১শে জানুয়ারি যুক্তরাজ্য থেকে সিলেটে সরাসরি আসা একটি বিমানের ১৫৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২৮ জনের শরীরে করোনাভাইরাস ধরা পড়ে।

সরকারি নিয়ম অনুসারে তাদের চারদিনের জন্য বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে নেয়া হয়েছিল। গত রবিবার তাদের নমুনা নেয়া হয়। সোমবার সকালে ২৮ জনের কোভিড-১৯ পজিটিভ শনাক্ত হয়। এই ২৮ জনকে খাদিমপাড়ার ৩১ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে। বিবিসি বাংলা