যুক্তরাষ্ট্রে জিয়াউর রহমানের নামে সড়কের নামকরণ

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬:৪৮ অপরাহ্ণ, জুন ২১, ২০২১ | আপডেট: ৬:৪৮:অপরাহ্ণ, জুন ২১, ২০২১

যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ড স্টেটের বাল্টিমোর সিটির ডিপার্টমেন্ট অব ট্রান্সপোর্ট কর্তৃপক্ষ বাংলাদেশের সাবেক প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের নামে একটি সড়কের নামকরণ করেছে।

রোববার (২০ জুন) বাংলাদেশি-আমেরিকান কমিউনিটি মেরিল্যান্ড আয়োজিত একটি বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানে কয়েকশ প্রবাসী বাংলাদেশির উপস্থিতিতে সড়কটির ফলক উন্মোচন করেন মেরিল্যান্ড স্টেট ডেলিগেট রবিন টি লুইস।

সোমবার (২১ জুন) বিএনপির কেন্দ্রীয় সহ-দপ্তর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশি-আমেরিকান কমিউনিটি মেরিল্যান্ড আয়োজিত একটি বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানে শতশত প্রবাসী বাংলাদেশির উপস্থিতিতে বাংলাদেশি কালজয়ী এই নেতার নামে সড়কটির ফলক উন্মোচন করেন মেরিল্যান্ড স্টেট ডেলিগেট রবিন টি লুইস। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে লন্ডন থেকে ভার্চুয়ালি যোগ দেন শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের জ্যেষ্ঠ সন্তান ও তার প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

ম্যারিল্যান্ডে জিয়াউর রহমান ওয়ে উদ্বোধনকালে উপস্থিত প্রবাসীরা

বাল্টিমোর সিটির সড়কটিকে ‘জিয়াউর রহমান ওয়ে’ নামকরণ করায় সিটি কর্তৃপক্ষকে নিজের এবং পরিবারের সদস্যদের পক্ষ থেকে গভীর কৃতজ্ঞতা জানান তারেক রহমান। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন- মেরিল্যান্ড হাউস মেম্বার ডেলিগেট রবিন টি লুইস, ডেলিগেট হ্যারি ভেন্ডারি, গভর্নর অফিসের কমিশনার ড. স্যাম কারকি, মেয়র অফিসের প্রতিনিধি রবার্ট জ্যাকসন, স্থানীয় মূলধারার রাজনীতিক গভর্নর অফিসের সাবেক কমিশনার আনিস আহমেদ প্রমুখ।

উদ্বোধক রবিন টি লুইস বলেন, বাংলাদেশের সাবেক প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানকে সম্মান জানাতে পেরে বাল্টিমোরবাসী অত্যন্ত আনন্দিত। শহীদ জিয়াকে আন্তর্জাতিক নায়ক উল্লেখ করে স্থানীয় এই জনপ্রতিনিধি বলেন, তাকে সম্মান জানানোর অর্থ হচ্ছে-গণতন্ত্রের প্রতি, মানুষের অধিকারের প্রতি সম্মান জানানো। তিনি আরও বলেন, প্রেসিডেন্ট জিয়া যেমন দেশ গড়েছেন, তেমনি মানুষের অধিকারকেও সমুন্নত রেখেছেন।

ডেলিগেট হ্যারি ভেন্ডারি বলেন, আজকের এই আনন্দ কেবল বাংলাদেশি কমিউনিটির নয় সমগ্র এশিয়ান কমিউনিটির। এই শহরে প্রেসিডেন্ট জিয়ার নামে যে সড়কের ফলক উন্মোচিত হলো তা চির অম্লান থাকবে এবং মূলধারার রাজনীতিতে বাংলাদেশি কমিউনিটির আরও ব্যাপক অংশগ্রহণ কামনা করেন।

সাবেক কমিশনার আনিস আহমেদ বলেন, শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান বাংলাদেশে উন্নয়ন ও উৎপাদনের রাজনীতির সূচনা করেছিলেন। তিনি বহুদলীয় গণতন্ত্র প্রবর্তনের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে সকল দল ও মতের রাজনীতির সুযোগ অবারিত করেছিলেন। বিশ্বসভায় বাংলাদেশ পরিচিতি পেয়েছিলো তার মাধ্যমে। গোটা বিশ্ব আজও শহীদ জিয়ার অভাব তীব্রভাবে অনুভব করে। ‘জিয়াউর রহমান ওয়ে’ নামকরণ তাঁর প্রতি সম্মানের বহিঃপ্রকাশ বলে উল্লেখ করেন।