যুক্তরাষ্ট্রে বিএনপির ‘লবিস্ট নিয়োগ’:দ্য পলিটিকো

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:১৭ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৮ | আপডেট: ১১:১৭:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৮
যুক্তরাষ্ট্রে বিএনপির ‘লবিস্ট নিয়োগ’:দ্য পলিটিকো

টিবিটি রাজনীতিঃএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনে তদবির চালাতে যুক্তরাষ্ট্রে ‘লবিস্ট’ নিয়োগ করেছে বিএনপি। এমন খবর দিয়েছে রাজনীতি বিষয়ক ম্যাগাজিন দ্য পলিটিকো।

দেশটির জাস্টিস ডিপার্টমেন্টের বরাত দিয়ে গত ১১ সেপ্টেম্বর প্রকাশিত ম্যাগাজিনটির এক প্রতিবেদনে এমনটাই বলা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গত আগস্টে যুক্তরাষ্ট্রের ‘ব্লু স্টার স্ট্র্যাটেজিস’ এবং ‘রাস্কি পার্টনার্স’ এর সঙ্গে বিএনপির হয়ে চুক্তি করেছেন আব্দুস সাত্তার নামে ব্যক্তি। ওই লবিস্ট ফার্মটির কাজ হবে- বাংলাদেশের নির্বাচন সামনে রেখে বিএনপির পক্ষে ট্রাম্প প্রশাসনের কাছে তদবির করা।

পলিটিকোর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘ব্লু স্টার স্ট্র্যাটেজিস’ বিএনপির পক্ষে বিভিন্ন বার্তা তৈরি করে তা যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের কর্মকর্তাদের কাছে পৌঁছে দেবে, যা বিএনপির পক্ষে কাজ করতে সাহায্য করবে।

এছাড়া মার্কিন কংগ্রেস ছাড়াও প্রভাবশালী ব্যক্তি ও সংস্থার কাছে বিএনপির বার্তা পৌঁছে দিতে কাজ করবে এ লস্টি ফার্ম।

যুক্তরাষ্ট্রের আইন অনুযায়ী, এ ধরনের ফার্মের আয়-ব্যয়ের বিবরণী জাস্টিস ডিপার্টমেন্টে জমা দেওয়ার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। সেই বিবরণীর ভিত্তিতেই এ প্রতিবেদন প্রকাশ করার কথা উল্লেখ করেছে পলিটিকো।

চুক্তি অনুযায়ী, ‘ব্লু স্টার’কে আগস্ট মাসে ২০ হাজার ডলার এবং বছরের বাকি মাসগুলোয় ৩৫ হাজার ডলার করে দিতে হবে। ‘রাস্কি পার্টনার্স’ ব্লু স্টারের সাব-কন্ট্রাক্ট হিসেবে কাজ করবে। এই প্রতিষ্ঠানটি আগস্টের জন্য পাবে ১০ হাজার ডলার ও বাকি মাসগুলোর জন্য পাবে ১৫ হাজার ডলার।

পলিটিকো হোয়াইট হাউজ, কংগ্রেস, প্রশাসনসহ আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংস্থায় অর্থের বিনিময়ে তদবিরকারীদের যোগ্যতা, সক্ষমতা এবং কাজের গতিপ্রকৃতি পর্যবেক্ষণ করে নিয়মিতভাবে প্রতিবেদন প্রকাশ করে থাকে। এরই ধারাবাহিকতায় বিএনপির লবিস্ট নিয়োগের কথা প্রকাশ করেছে।

পলিটিকোর প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, ২০০৯ সাল থেকে বাংলাদেশের ক্ষমতায় রয়েছে বিএনপির প্রধান রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ। ২০১৭ সালে হিউম্যান রাইটস ওয়াচের এক প্রতিবেদনের কথা উল্লেখ করে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, বিএনপি নেতাদের অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে আটকে রাখা ও হত্যার সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীও জড়িত রয়েছে। যদিও সরকারের পক্ষ থেকে তা অস্বীকার করা হয়েছে।

এদিকে, বিএনপির সহ আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা বাংলানিউজকে বলেন, এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত আমি কিছু জানি না। কোনো রিপোর্টও দেখিনি।

ব্লু স্টার স্ট্র্যাটেজিসের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কারেন ট্রামোন্টানো। বিল ক্লিনটন মার্কিন প্রেসিডেন্ট থাকাকালে তিনি তার প্রশাসনের ডেপুটি চিফ অব স্টাফ ছিলেন। আর ওই ফার্মের চিফ অপারেটিভ অফিসার জন পডেস্টাও ছিলেন ক্লিনটনের একজন জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা।