যেভাবে চিনবেন ভুয়া খবর ও ছবি

প্রকাশিত: ১০:১৭ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৮, ২০১৮ | আপডেট: ১০:১৭:অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৮, ২০১৮

গেল বছর যুক্তরাষ্ট্রে এক ঘূর্ণিঝড়ের পরে টেক্সাস এবং হিউস্টোন শহরের পানিতে ডুবে যাওয়া রাস্তায় হাঙর সাঁতার কাটছে, এমন একটি ছবি ভাইরাল হয়েছিল।

তিন লাখ শেয়ার হওয়ার পর দেখা গেল, এটি ২০১৪ সালে ক্যারিবিয়ান অঞ্চলের একটি ছবি। আরেকটি ভাইরাল ছবিতে দেখানো হয়েছিল, জার্মানিতে মুসলিমরা দাঙ্গায় জড়িয়ে পড়েছে। ধারণা করা হয়, কট্টর দক্ষিণপন্থীরা ছবিটি ছড়িয়ে দিয়েছিল। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে এই ছবি ছিল একটি ফুটবল ম্যাচের দাঙ্গার ছবি।

এমনি নানা ভুয়া ছবি অনলাইনে ছড়ায়। ছবির পাশাপাশি অনলাইনে ভুয়া সংবাদ ও ভিডিও উদ্দেশ্যমূলকভাবে ছড়ায় স্বার্থন্বেষী মহল। আর নির্বাচনী মৌসুম হলে তো কথাই নেই। অনলাইন সয়লাব হয়ে যায় নানা ভুয়া খবরে। এর মধ্যে কোনটি আসল আর কোনটি ভুয়া তা নিয়ে বিপাকে পড়েন সাধারণ মানুষ।

একটু সচেতন ও কৌশলী হলে এই সমস্যা থেকে রেহাই পাওয়া যেতে পারে। সম্প্রতি তথ্যের সত‍্যতা যাচাইয়ের ওয়েবসাইট বুম লাইভের ডেপুটি এডিটর কারিন রেবিলো ঢাকায় এক কর্মশালায় ভুয়া খবর চেনার কৌশল তুলে ধরেন। সেই আলোকে এই প্রতিবেদনে ভুয়া খবর যাচাইয়ের কিছু কৌশল তুলে ধরা হল।

আকর্ষণীয় শিরোনাম

ভুয়া সংবাদের শিরোনামগুলো খুব আবেগ প্রবণ কিংবা আকর্ষণীয় হয়। তাই অনলাইনে কোন সংবাদের আকর্ষণীয় শিরোনাম দেখলে সর্তক থাকতে হবে। কোন সংবাদ দেখে সন্দেহ হলে শিরোনামটি কপি করে গুগলে সার্চ করুন। তারপর দেখুন শীর্ষস্থানীয় কোন সংবাদপত্রে বিষয়টি নিয়ে কোন সংবাদ রয়েছে কিনা।

ছবি যেভাবে যাচাই করবেন?

মনে আছে, ঢাকার উত্তর পশ্চিমের নাসিরনগর এলাকায় সংখ্যালঘুদের ওপর আক্রমণের ঘটনা? মুসলিমদের পবিত্র মসজিদ মক্কায় হিন্দু দেবীর মূর্তি স্থাপনের একটি ভুয়া ছবি ছড়ানোর পর মুসলিম উগ্রবাদীরা এলাকাটির ১৫টি হিন্দু মন্দিরের পাশাপাশি অনেক বাড়িঘর ভাঙচুর করেছিল। বাংলাদেশের ধর্মীয় সংখ্যালঘু হিন্দুদের বিরুদ্ধে ঘৃণা ছড়াতে ফটোশপে একটি ছবি সম্পাদন করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তা ছড়িয়ে দেয়া হয়। তারপর তা অনেক মানুষের কাছে পৌঁছে কিন্তু কেউ যাচাই না করেই বিশ্বাস করেন এবং যার ফলে সৃষ্টি হয় বড় ধরনের সমস্যা।

ইন্টারনেটে ছবির মাধ্যমে সবচেয়ে বেশি ভুয়া খবর ছড়ানো থাকে। কেননা ছবিকে সহজেই সম্পাদনা  করে বিভিন্ন মহল ব্যক্তিগত উদ্দেশ্যে ব্যবহার করতে পারেন। সচেতনতার অভাবে সম্পাদনা করা ছবি বিশ্বাস করেন ব্যবহারকারীরা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম কিংবা অনলাইন পাওয়া কোন ছবি নিয়ে সন্দেহ হলে তা সহজেই যাচাই করা যায়।

ছবি যাচাইয়ের জন্য বেশ কিছু উপায় রয়েছে। সবার প্রথমে যেতে হবে গুগলের কাছে। এ জন্য এই ঠিকানায় গিয়ে সার্চের পাশে থাকা ক‍্যামেরা আইকনে ক্লিক করতে হবে। তারপর ‘upload an image’ বাটনে ক্লিক করে ডাউনলোড করা ছবিটি নির্বাচন করতে হবে। তাহলে গুগল ইমেজটি সার্চ করে এটি কোথায় ব‍্যবহার করা হয়েছে তা দেখিয়ে দেবে। সেখান থেকে ছবিটির উৎস সম্পর্কে ধারণা পাওয়া যাবে।

তবে অনেক সময় গুগলে সার্চ করে কিছু ছবির তথ্য নাও পাওয়া যেতে পারে। এর জন্য ঢুঁ মারতে পারেন ইয়ানডেক্স ডটকমে। এটি গুগলের মতই রাশিয়ার তৈরি একটি সার্চ ইঞ্জিন।

ছবি সার্চের জন্য মাঝে মাঝে গুগল থেকে ভালো ফলাফল মিলে এতে। ওয়েবসাইটিতে  গেলে উপরে ‘image’ নামে একটি অপশন দেখা যাবে। সেখানে ক্লিক করে ইমেজ সার্চের অপশনটি চালু  হবে। সেখান থেকে  সার্চের ডান পাশে থাকা ইমেজ আইকনে ক্লিক করতে হবে। তারপর যে ছবিটি সার্চ করতে হবে তা আপলোড বাটনে ক্লিক করে নির্বাচন করে দিতে হবে। তাহলে ছবিটি পূর্বে কোথায় ব্যবহার হয়েছে কিনা তা দেখা যাবে সার্চের ফলাফলে। চাইলে সরাসরি ছবির লিংক দিয়েও ছবি সার্চ করা যাবে।

ঠিক একই ধরনের সুবিধা মিলবে টিনআই ওয়েবসাইটে। যেখানে কোন ছবি আপলোড করে সে সম্পর্কে তথ্য পাওয়া যাবে। যে ছবিটি দিযে সার্চ করবেন তা যদি ভালো রেজুলেশনের হয় তাহলে তথ্য খুঁজে পেতে সুবিধা হবে।

ওয়েবসাইটের ইউআরএল যাচাই

সম্প্রতি দেশের শীর্ষস্থানীয় কিছু ওয়েবসাইটের ক্লোন সাইট তৈরি হয়েছিল। ক্লোন সাইটের ডিজাইন দেখতে পুরোপুরি মূল সাইটের মতই। প্রথমে দেখে কেউ বুঝতে পারবেন না এটি ভুয়া সাইট। তবে যদি ওয়েবসাইটের ইউআরএলের দিকে লক্ষ্য করা হয় তাহলে বোঝা যাবে। উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, বিবিসি বাংলার ওয়েবসাইটের কথা। সাইটির মূল লিংক www.bbc.com/bengali। কিন্তু ক্লোন সাইটের ডিজাইন একই হলেই ইউআরএল লিংক ভিন্ন www.bbc-bangla.com এমন হতে পারে।

তাই হুবহু একই রকম সাইট হলেও কোন খবর বিশ্বাসের আগে ইউআরএল ভালো করে দেখে নেয়া জরুরি।

সংবাদটি কৌতুক নয় তো?

অনলাইনে অনেক প্যারোডি সাইট রয়েছে। সে সাইটগুলোতে কোন সংবাদ এমনভাবে উপস্থাপন করা হয় যেন মনে হয় তা সত্যি। তাই এই প্যারোডি নিউজের শিরোনাম দেখে বা নিউজ পড়ে বিভ্রান্ত হন। তাই কোন সাংবাদ দেখার পরে তা বিশ্বাস বা শেয়ারের আগে লক্ষ্য করুন এটি কোন প্যারোডি সাইট কিনা। প্যারোডি সাইট চেক করতে ওয়েবসাইটে থাকা সংবাদগুলো পড়ুন। মনোযোগ দিয়ে তা পড়লে সহজেই বুঝতে পারবেন এটি ট্রল বা প্যারোডি ধরনের সাইট।