রংপুরে ‘নো হেলমেট, নো পেট্রল’

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:৫৭ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১, ২০১৮ | আপডেট: ১১:৫৭:পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১, ২০১৮

মাথায় হেলমেট না থাকলে মোটরসাইকেলে পেট্রল না দেয়ার বিষয়ে পুলিশের আহ্বানে সাড়া দিয়েছেন রংপুরের পেট্রল পাম্প মালিকরা। শনিবার দুপুরে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে রংপুর জেলা পেট্রোলিয়াম অনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে পুলিশ প্রশাসনের বৈঠকে তারা সহমত প্রকাশ করেন।

খোলা বাজারে তৈল বিক্রি বন্ধ ও মোটরসাইকেল ক্রয়ের সময় বাধ্যতামূলক হেলমেট ব্যবহারের ওপর গুরুত্ব দিয়ে চালক ও পাম্প কর্মচারীদের সচেতনতা বাড়াতে ব্যানার, পোস্টার এবং লিফলেট বিতরণের বিভিন্ন পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয় ওই বৈঠকে।

সভায় রংপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্বিক) আবু মারুফ হোসেন বলেন, সড়ক-মহাসড়ক ছাড়াও আঞ্চলিক সড়কেও এখন অহরহ মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা ঘটছে। মাথায় হেলমেট না থাকার কারণে ক্ষতি হচ্ছে বেশি। কিন্তু হেলমেট থাকলে ক্ষতি কম হয়। তাই মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা রোধে হেলমেট ছাড়া পেট্রল না দিতে পাম্প মালিকদের চিঠি দেয়াসহ ব্যানার, পোস্টার এবং লিফলেট বিতরণ করা হবে।

রংপুর চেম্বারের প্রেসিডেন্ট ও রংপুর জেলা পেট্রোলিয়াম অনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা সোহরাব চৌধুরী টিটু জানান, পুলিশের পক্ষ থেকে আমাদের অনুরোধ করা হয়েছে। বিষয়টি অতি গুরুত্ব সহকারে নিয়েছি। পেট্রল নিতে মোটরসাইকেল চালকদের পাম্পে আসতে হয়। এই পাম্প থেকে প্রতিদিন শত শত লিটার পেট্রল বিক্রি হয়। এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা গেলে সড়ক দুর্ঘটনা অনেকটাই কমে আসবে। সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে জেলার প্রতিটি পাম্প মালিক ও কর্মচারীদের নিয়ে সেমিনার এবং চালকদের হেলমেট ব্যবহারে সচেতনতা বাড়াতে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণের কথাও তিনি জানান।

সভায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল-এ) সাইফুর রহমান, ট্রাফিক পুলিশের ইনচার্জ খান মো. মিজানুর ফাহামী, রংপুর জেলা পেট্রোলিয়াম অনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি আজিজুল ইসলাম মিন্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক এ.বি.এম নুর-উস-শামস, কোষাধ্যক্ষ আতিক উল্লাহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।