রাজবাড়ী পৌর টোল আদায়ের প্রতিবাদে দক্ষিণাঞ্চলের বাস ১ঘন্টা বন্ধ

প্রকাশিত: ৫:৩৬ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৫, ২০১৯ | আপডেট: ৫:৩৬:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৫, ২০১৯

রাজবাড়ীতে পৌর টোল আদায়ের প্রতিবাদে রাস্তায় নেমেছে বাস মালিক গ্রুপ, রাজবাড়ী জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন ও ট্রাক মালিক সমিতির সদস্যরা।

আজ সোমবার সকাল ৬টা থেকে পৌরসভার কর্মচারীরা নিজেরাই টোল আদায়ে রাস্তায় নামলে তাদের প্রতিহত করতে রাজবাড়ী বাস টার্মিনাল এলাকায় অবস্থান নেয় পরিবহন মালিক ও শ্রমিকরা। এতে করে রাজধানী ঢাকাগামীসহ পার্শ্ববর্তী ফরিদপুর, ঝিনাইদহ, কুষ্টিয়া, যশোর, খুলনা, বরিশাল, গোপালগঞ্জ রুটের যাত্রীবাহী বাসগুলো আটকা পড়ে।ঘন্টাব্যাপী বাস-ট্রাক রাস্তায় আটকে থাকায় চরম ভোগান্তিতে পড়ে এসব রুটের যাত্রীরা।

পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে মাঠে নামে পুলিশ প্রশাসন।পৌর কর্তৃপক্ষ টোল আদায় বন্ধ করলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।তবে পৌরসভা মেয়র সাংবাদিকদের জানান, কর্তৃপক্ষ কোন রকম ঝামেলা না করে জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে টোল আদায়ে পরিবহন মালিক শ্রমিকদের সাথে সমঝোতায় যেতে আগ্রহী।

এর আগে, গত রোববার (১৪ এপ্রিল) বেলা ১১টায় জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে বাস মালিক গ্রুপ, রাজবাড়ী জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন ও ট্রাক মালিক সমিতির সদস্যরা।

পরিবহন মালিকরা বলেন, মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা উপেক্ষা করে রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া মহাসড়ক দিয়ে চলাচলরত ট্রাক থেকে টোল নেয়া হচ্ছে। এর প্রতিবাদ জানিয়েছে রাজবাড়ীর বাস-ট্রাক মালিক ও শ্রমিক নেতারা যৌথভাবে সংবাদ সম্মেলন করে। সম্মেলনে অংশ নেন, রাজবাড়ী জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. রকিবুল ইসলাম পিন্টু, সাধারণ সম্পাদক মো. আ. রশিদ, রাজবাড়ী বাস মালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক মুরাদ হাসান মৃধা, জেলা ট্রাক মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আক্তারুজ্জামান হাসান, সহ-সাধারণ সম্পাদক দিদারুল হক হিরু প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা বলেন, রাজবাড়ী পৌরসভা এলাকায় চলাচলকৃত ট্রাক থেকে নির্ধারিত টোল আদায়ের জন্য বাৎসরিক ইজারা দেওয়া হয়। কিন্তু ইজারাদার তা না মেনে পৌর এলাকায় পার্কিং অথবা নির্ধারিত টোল না তুলে তারা মাস্তান শ্রেণির লোকজন দিয়ে রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের জেলখানার সামনে ও কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালের সামনে জোরপূর্বক গাড়ি প্রতি ৬০ টাকা করে তোলার চেষ্টা করে। এ অবস্থায় যেকোনো সময় বড় ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।

সড়কে এ অবৈধ টোলের নামে চাঁদা তোলার চেষ্টা করলে সব রকমের যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেবার হুমকি দেয় শ্রমিক ও মালিক নেতারা। তারা দাবি করেন, রাজবাড়ী বাস টার্মিনাল সংস্কার করা, মহা-সড়ক থেকে টোল আদায় বন্ধ করা এবং ট্রাক টার্মিনাল নির্মাণ না করা পর্যন্ত পৌরসভার নিযুক্ত ইজারাদারকে আর টোল প্রদান করবেন না।

এদিকে মহা-সড়কে টোল আদায় প্রসঙ্গে মোবাইল ফোনে কোন কথা বলতে চাননি রাজবাড়ী পৌরসভার মেয়র মহম্মদ আলী চৌধুরী। তবে তিনি পাল্টা অভিযোগ করে বলেন, মহা-সড়কের তিন জায়গা থেকে শ্রমিকরা অবৈধভাবে চাঁদা আদায় করছে।