রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে পোশাক শ্রমিককে দলবেধে ধর্ষণ

প্রকাশিত: ৯:০২ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২২, ২০২০ | আপডেট: ৯:০২:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২২, ২০২০
ছবি: সংগৃহীত

গাজীপুর মহানগরীতে সহকর্মীকে বেঁধে রেখে এক গার্মেন্ট শ্রমিককে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করেছে তিন জন। ওই নারী শ্রমিক রাতের শিফটের ডিউটি শেষে সহকর্মীর সঙ্গে বাসায় ফিরছিলেন।

বুধবার মধ্য রাতে কাশিমপুর থানার সারদাগঞ্জ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনা জড়িতদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে বৃহস্পতিবার সকালে ওই শ্রমিকের সহকর্মীরা কাশিমপুর থানার সামনে বিক্ষোভ করে। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

ঘটনার সাথে জড়িত আমিনুল ইসলাম (২৮), শাহাদাত হোসেন (৩৫) ও বায়েজিদ হোসেনকে (৩০) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তার আমিনুল ইসলাম ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট থানার গোবরকুড়া এলাকার আব্দুল জব্বারের ছেলে, শাহাদাত হোসেন গাজীপুর মহানগরের সারদাগঞ্জ এলাকার আমিনুল ইসলামের ছেলে ও বায়েজিদ হোসেন একই এলাকার আব্দুল আলীমের ছেলে।

কারখানার শ্রমিক ও ভিক্টিমের বরাত দিয়ে কাশিমপুর থানার ওসি মাহবুব এ খোদা জানান, গাজীপুর মহানগরের সারদাগঞ্জ এলাকার আরব ফ্যাশন লিমিটেড নামে পোশাক কারখানার ওই নারী শ্রমিক বুধবার রাতে ছুটির পর বাসায় ফিরছিলো। পথে কারখানার অদূরে ৫/৬ জন যুবক তাকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে যায়। পরে স্থানীয় স্কয়ার গেট এলাকার নির্জন স্থানে গিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

পরে তার পরিবারের লোকজনকে ফোনে ৫০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। বিষয়টি জানাজানি হলে পুলিশ শাহাদাত হোসেন, বায়েজিদ হোসেন, আমিনুল ইসলামকে আটক করে।

গাজীপুর মেট্টোপলিটন পুলিশ কোনাবাড়ি জোনের সহকারী কমিশনার থোয়াই অংপ্রু মারমা জানান, এ ঘটনায় জড়িত ৩ জনকে আটক করা হয়েছে। ভুক্তভোগী নারী শ্রমিকের স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

কাশিমপুর থানার ওসি মাহবুব এ খোদা জানান, ঘটনাটি পুলিশ তদন্ত করে দেখছে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত সব আসামিদের গ্রেপ্তার করা হবে। এ বিষয়ে ভিক্টিম বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার মামলা মামলা করেছেন।