রিমান্ডে রায়হান কবির, পাশে নেই হাইকমিশন

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯:২৫ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৬, ২০২০ | আপডেট: ৯:২৫:অপরাহ্ণ, আগস্ট ৬, ২০২০

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার সঙ্গে সাক্ষাৎকারে মালয়েশিয়ায় বসবাসরত অভিবাসীদের প্রতি দেশটির আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বৈষম্যমূলক আচরণের কথা উল্লেখ করেছিলেন ২৫ বছর বয়সী বাংলাদেশি অভিবাসী যুবক রায়হান কবির। এতে তার ওপর ক্ষুব্ধ হয় মালয়েশিয়া সরকার। বেশ কিছুদিন আগেই তাকে গ্রেপ্তার করে দেশটির পুলিশ। বৃহস্পতিবার সকালে তাকে আদালতে হাজির করে ১৪ দিনের রিমান্ড চাইলে ১৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়।

রায়হানের আইনজীবী সুমিতা শান্তিনি কিষনা বলেন, আগের দিন রাতেই আমরা জানতে পারি, রায়হান কবিরকে আদালতে তোলা হচ্ছে। সে অনুযায়ী বৃহস্পতিবার আমরা আদালতে উপস্থিত হই। তবে দুঃখজনক হলেও সত্য, বাংলাদেশ হাইকমিশনের কোনো স্তরের কর্মকর্তাই ওই সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন না।

তিনি আরো বলেন, রায়হান কবির তার আগের কথাতেই অটল আছেন। তিনি মালয়েশিয়ায় যা দেখেছেন তাই বলেছেন, কিছুমাত্র বানিয়ে বলেননি। বাস্তবতা তুলে ধরা ছাড়া মালয়েশিয়ার কাউকে আহত করা তার উদ্দেশ্য ছিল না। তাছাড়া পুলিশ এখনো রায়হানের বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট কোনো অভিযোগ আনতে পারেনি।

এদিকে মালয়েশিয়ার অভিবাসন বিভাগ জানিয়েছে, রায়হানের বিষয়ে যে তদন্ত চলছে সেটা শেষ করে সব নথি অ্যাটর্নি জেনারেল চেম্বারে (এজিসি) জমা দেওয়া হয়েছে। এজিসি সব কাগজপত্র খতিয়ে দেখার পর রায়হানকে দেশে ফেরত পাঠানো হবে। আগামী ৩১ আগস্ট তাকে ফেরত পাঠানো হতে পারে।

উল্লেখ্য, গত ৩ জুলাই আল-জাজিরার ইংরেজি অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে ‘লকডআপ ইন মালয়েশিয়ান লকডাউন-১০১ ইস্ট’ শীর্ষক একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। ওই প্রতিবেদনে মালয়েশিয়ায় থাকা প্রবাসী শ্রমিকদের প্রতি লকডাউনে কর্তৃপক্ষের নিপীড়নমূলক আচরণের বিষয়টি উঠে আসে। ওই প্রতিবেদনে কথা বলেন রায়হান কবির। এই ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে মালয়েশিয়ার পুলিশ তার বিরুদ্ধে সমন জারি করে। ২৪ জুলাই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। রায়হানের বাড়ি নারায়ণগঞ্জ জেলায়।