রোনালদোর বিরুদ্ধে মার্কিন নারীর ধর্ষণের অভিযোগ!

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:১৪ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১, ২০১৮ | আপডেট: ১২:১৪:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১, ২০১৮

নীরবতা ভেঙে যৌন হয়রানির বিরুদ্ধে মুখ খুলছেন নারীরা। শুরুটা হয়েছিল হলিউড থেকে। তার ঢেউয়ে কাঁপছে বলিউডও। আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধেও ভুরি ভুরি অভিযোগ উঠছে যৌন হয়রানি নিয়ে।

এবার সেই দলে নাম উঠলো ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোরও। সম্প্রতি এক মার্কিন নারী অভিযোগ করেছেন পর্তুগিজ এই সুপারস্টার নাকি ২০০৯ সালে তাকে ধর্ষণ করেছিলেন। অবশ্য এই খবর পুরোপুরি ‘ভুয়া’ বলে উড়িয়ে দিয়েছেন রোনালদো।

জার্মান সাময়িকী ডের স্পিগেলের এক প্রতিবেদনে উঠে আসে চমকপ্রদ এই তথ্য। সাময়িকীটি লিখেছে, ক্যাথরিন মায়োরগা নামের এক নারী দাবি করেছেন, ২০০৯ সালে লাস ভেগাসে একটি হোটেল কক্ষে রোনালদোর হাতে ধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন তিনি। এ ঘটনার পর দ্রুতই লাস ভেগাসের পুলিশকে বিষয়টি জানান তিনি।

সাময়িকীটি আরো জানায়, পরে ২০১০ সালে আদালতের বাইরে রোনালদোর সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে নাকি সমঝোতায়ও পৌঁছান মায়োরগা। বিষয়টি প্রকাশ না করতে ৭৫ হাজার ডলার নেন ওই নারী। তবে মায়োরগার আইনজীবীরা এখন ঘটনাটি প্রকাশ্যে আনতে চাইছে।

এদিকে নিজের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগকে ভুয়া বলে উড়িয়ে দিয়েছেন রোনালদো। রিয়াল মাদ্রিদের সাবেক এই তারকা নিজের ইনস্টাগ্রামে এক ভিডিও পোস্টের মাধ্যমে বলেছেন, ‘এটা ‘ভুয়া’ সংবাদ। তারা আমার নাম ব্যবহার করে নিজেদের প্রচার করতে চাইছে। এটা স্বাভাবিক। আমার নাম ব্যবহার করে তারা বিখ্যাত হতে চাইছে। তবে আমি খুশি আছি। সব ঠিক আছে।’

রোনালদোর আইনজীবীরা প্রতিবেদনকে পুরোপুরি বেআইনি দাবী করে জার্মান সাময়িকীটির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার হুমকি দিয়েছে। সূত্র : বিবিসি।