রোহিঙ্গাদের মোবাইলসেবা বন্ধের নির্দেশ

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: 4:25 PM, September 2, 2019 | আপডেট: 4:30:PM, September 2, 2019

রোহিঙ্গাদের জন্য মোবাইল সেবা বন্ধ হতে চলেছে। আগামী ৭ দিনের মধ্যে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে মোবাইল অপারেটরগুলোকে চিঠিও পাঠিয়েছে বিটিআরসি।

জানা গেছে, ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ সংস্থাকে (বিটিআরসি) অবৈধভাবে সিম বিক্রির বিরুদ্ধে কঠোর হওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন।

রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে অন্যের নামে সিম কিনে বহু রোহিঙ্গারা তা ব্যবহার করে আসছে। সরকারের বিভিন্ন নীতি নির্ধারণী মহল থেকে সম্প্রতি এ বিষয়ে কঠোর হওয়ার কথা বলা হয়েছে। জাতীয় পরিচয়পত্র যাচাই করে অবৈধ সংযোগ চিহ্নিত করার সক্ষমতা আছে সরকারের।

বিটিআরসি সেই পরিপ্রেক্ষিতে আগামী সাত কার্যদিবসের মধ্যে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কোনো প্রকার সিম বিক্রি, রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী কর্তৃক সিম ব্যবহার বন্ধ তথা তাদেরকে মোবাইল সুবিধা প্রদান না করার বিষয়টি নিশ্চিত করার জন্য সকল মোবাইল অপারেটরকে রোববার জরুরী নির্দেশ প্রদান করেছে।

২০১৭ সালে মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশে দেশটির সেনাবাহিনী রোহিঙ্গা মুসলমানদের উপর গণহত্যা ও জাতিগত নিধন শুরু করলে সে বছর ২৫ আগস্ট বাংলাদেশ সীমান্ত খুলে দেয় সরকার। তখন দেশে নতুন করে অন্তত সাত লাখ রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী বাংলাদেশে শরনার্থী হিসেবে আশ্রয় নেয়। আশ্রয় নেবার পর বাংলাদেশের পক্ষ থেকে তাদের সব ধরনের সহযোগিতা করলেও শুরু থেকেই তাদের কাছে কোন প্রকার মোবাইল সিম যেন অপারেটররা বিক্রি না করে তার জন্য সেবছর সেপ্টেম্বরে নির্দেশনা দিয়েছিলেন তৎকালীন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী। ওই নির্দেশ অমান্য করে কোন অপারেটর যদি সংযোগ দেয় তবে তাকে শাস্তির আওতায় নিয়ে আসার কথাও জানান তিনি।

এরপর ২০১৮ সালের অক্টোবরেও রোহিঙ্গ ক্যাম্প এলাকায় মোবাইল অপারেটরদের নেটওয়ার্ক বন্ধ রাখার জন্য অপারেটরদের নিদের্শ দিয়েছিল বিটিআরসি। বর্তমানে কক্সবাজারের কুতুপালং, বালুখালী ক্যাম্পসহ কয়েকটি ক্যাম্পে অন্তত ১১ লাখ রোহিঙ্গা শরনার্থী রয়েছে।

আগামী সাত কার্যদিবসের মধ্যে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কোনো ধরনের সিম বিক্রি, রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর সিম ব্যবহার বন্ধ তথা রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে মোবাইল সুবিধাদি না দেয়া-সংক্রান্ত সব ব্যবস্থা নিশ্চিত করে বিটিআরসিকে অবহিতকরণের জন্য নির্দেশ দেয়া হয় চিঠিতে।