লাগাতার কর্মবিরতি, অচল বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়

প্রকাশিত: ৬:৪৬ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১, ২০১৯ | আপডেট: ৬:৪৭:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১, ২০১৯

রনি আহমেদ, বেরোবি প্রতিনিধি: টানা ১৯ দিন ধরে কর্মবিরতি পালন করছে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) কর্মচারীরা। কর্মচারীদের একটানা কর্মবিরতির ফলে কার্যত বিশ্ববিদ্যালয়টি অচল হয়ে পড়েছে। তবে সাড়া মিলছে না কর্তৃপক্ষের। আজ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের দক্ষিণ পাশে দাবি আদায়ে মঞ্চ তৈরী করেছে কর্মচারীরা।

জানা যায়, কর্মচারীদের দাবিগুলো মেনে না নেয়ায় এবং দাবিগুলোর ব্যাপারে কোন আশ্বাস না পাওয়ায় আজ ১৯ তম দিনের মতো সর্বাত্মক কর্মবিরতি অব্যহত রেখেছে কর্মচারীরা। তারা ১০ দফা দাবি আদায়ে কর্মবিরতির ১৯তম দিনে আজ সকাল ১১ টা থেকে প্রশাসনিক ভবনের দক্ষিণ পাশে অস্থায়ী মঞ্চ তৈরী করে সেখানে অবস্থান করছেন। এর আগে সকাল ১০ টায় পুরো ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল করে কর্মচারী ইউনিয়ন।

কর্মচারীদের দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে, আগামী সিন্ডিকেটের আগে কর্মচারীদের নীতিমালা পাশ, চলতি মাসেই ৫৮ জন কর্মকর্তা-কর্মচারীর বকেয়া পরিশোধ, দ্রুত পেনশন নীতিমালা বাস্তবায়ন, সাময়িক বরখাস্তকৃত কর্মচারীদের চাকরিতে পুনর্বহাল, দূরের কর্মচারীদের জন্য গাড়ি ও আবাসন সুবিধা নিশ্চিত করা, কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতিকে লাঞ্চিত করার ঘটনার বিচার করা, কর্মচারী নিয়োগ কমিটিতে কর্মচারী ইউনিয়নের প্রতিনিধি রাখা ও মাস্টারোল কর্মচারীদের চাকরী স্থায়ী করা।

কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি নুর আলম বলেন, আমাদের দাবিগুলো নিয়ে এখনো উপাচার্য মহোদয় কোন আশ্বাস দেননি।
তাই যৌক্তিক দাবিগুলো মেনে না নেয়া পর্যন্ত আমাদের সর্বাত্মক কর্মবিরতি চলতেই থাকবে।

সার্বিক বিষয়ে জানতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিম উল্লাহ ও রেজিস্ট্রার আবু হেনা মোস্তফা কামালের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তারা ফোন রিসিভ করেননি।