লালমাইয়ে ফায়ার স্টেশন নেই, অগ্নি ঝুঁকিতে বিভিন্ন স্থাপনা

শাহজাদা এমরান শাহজাদা এমরান

কুমিল্লা প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৬:৪২ অপরাহ্ণ, মে ১১, ২০২১ | আপডেট: ৬:৪২:অপরাহ্ণ, মে ১১, ২০২১

কুমিল্লার লালমাই উপজেলা প্রতিষ্ঠার ৪ বছরেও কুমিল্লার লালমাইয়ে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন স্থাপন করা হয়নি। ফায়ার সার্ভিস স্টেশন না থাকায় উপজেলা সদরসহ প্রত্যন্ত অঞ্চলের হাটবাজারগুলোতে দোকানপাট, শিল্পপ্রতিষ্ঠান ও গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা অগ্নি ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। প্রতি বছরই অগ্নিকান্ডের ঘটনায় মানুষের কোটি কোটি টাকার সম্পদ পুড়ে নষ্ট হচ্ছে।

উপজেলা সদর ও প্রত্যন্ত অঞ্চলের হাট-বাজারগুলোর কোথাও অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটলে দক্ষিণের উপজেলা লাকসাম অথবা উত্তরের উপজেলা কুমিল্লা সদর দক্ষিণের ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ওপর ভরসা করতে হয়। এসব উপজেলা থেকে দমকল বাহিনীর গাড়ি ঘটনাস্থলে পৌঁছাতে পৌঁছাতে আগুনে সবকিছু পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

গত ১লা মে উপজেলার ভুশ্চি বাজারে অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে লাকসাম থেকে ফায়ার সার্ভিসের একটি টিম ঘটনাস্থলে পৌঁছতে প্রায় পৌনে এক ঘন্টা লেগেছে। ততোক্ষণে আগুনে বাজারের ৬টি দোকানের সকল কিছু পুড়ে প্রায় কোটি টাকার ক্ষতি হয়ে যায়। গত বছর বাগমারা বাজারেও এমন একাধিক অগ্নিকান্ড ঘটেছে। যেখানে ফায়ার সার্ভিস পৌঁছতে বিলম্ব হওয়ায় ক্ষতির পরিমান কয়েকগুন বেড়েছে।

প্রসঙ্গত, উপজেলা পরিষদ ও থানার অস্থায়ী কার্যালয় ছাড়াও পল্লী বিদ্যুতের একটি জোনাল অফিস রয়েছে উপজেলা সদর বাগমারায়। ২০ শয্যা সরকারি হাসপাতাল, ইউনিয়ন উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্র, ইউনিয়ন কমিউনিটি ক্লিনিক ও এক ডজন বেসরকারি ডায়াগনস্টিক সেন্টার রয়েছে এই উপজেলায়। রয়েছে মেঘনা গ্রæপের একটি শিল্প কারখানা। রিদম ফার্নিচারের ২টি ফ্যাক্টরিসহ শতাধিক উৎপাদনমুখি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। পাঁচ শতাধিক বহুতল ভবন রয়েছে। দুটি ¯œাতক কলেজ, ২৪ টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ২৪ টি মাদ্রাসা ও ৬৭টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। এসব স্থাপনায় যে কোনো মুহূর্তে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড ঘটার ঝুঁকি রয়েছে। তাছাড়া ফায়ার সার্ভিস স্টেশন না থাকায় প্রতিষ্ঠান কর্তৃ

লালমাই প্রেসক্লাব’র সাধারণ সম্পাদক ও সাপ্তাহিক লালমাই বার্তা’র সহ-সম্পাদক মোঃ কামাল হোসেন বলেন, উপজেলা পর্যায়ে ফায়ার স্টেশন না থাকায় থানা পুলিশসহ দুই একটি বড় প্রতিষ্ঠান ছাড়া কেউ অগ্নিনির্বাপন ব্যবস্থা গ্রহন করেনি। মাননীয় অর্থমন্ত্রী আ.হ.ম মুস্তফা কামাল এমপির নিকট আমাদের দাবী, দ্রæততম সময়ের মধ্যে লালমাই উপজেলায় ফায়ার সার্ভিস স্টেশন স্থাপন করতে হবে।

লালমাই থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আইয়ুব বলেন, লালমাইয়ে ফায়ার স্টেশন স্থাপন করতে অর্থমন্ত্রী মহোদয় সংশ্লিষ্ট দপ্তরে কথা বলেছেন। আশা করছি শীঘ্রই দূর্ভোগ কমবে।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন কুমিল্লার সহকারি পরিচালক মোঃ জসিম উদ্দিন বলেন, সরকারের ৬৭ প্রকল্পে লালমাইকে অর্ন্তভুক্তির জন্য প্রস্তাব প্রক্রিয়াধীন। প্রস্তাবটি অনুমোদন হলে লালমাই ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন এক একর জমির উপর প্রতিষ্ঠিত হবে।