লাহোরের বাদশাহী মসজিদে বসে কোরআন তিলাওয়াত শুনলেন প্রিন্স উইলিয়াম ও তার স্ত্রী(ভিডিও)

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: 6:58 PM, October 19, 2019 | আপডেট: 6:58:PM, October 19, 2019
ছবিঃ সংগৃহিত

যুক্তরাজ্যের ডিউক অব কেমব্রিজ প্রিন্স উইলিয়াম ও তার স্ত্রী ডাচেস অব কেমব্রিজ কেট মিডলটন, গতকাল বুধবার পাকিস্তানের সফরের তৃতীয় দিনে লাহোরের বাদশাহী মসজিদে বসে মনযোগী ছাত্রের মতো কোরআন তিলাওয়াত শোনেন। ইতিমধ্যে সেই দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ভাইরাল।

পাকিস্তানের বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমেও এসেছে সে ছবি।

সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছেন, প্রিন্স উইলিয়াম ও তার স্ত্রী কেট মিডলটন লাহোরের বাদশাহী মসজিদে যান। সেখানকার ইমাম তাদের স্বাগত জানান। তারপর তাদেরকে মসজিদের ভেতরে নিয়ে যান ইমাম।

ভেতরে প্রবেশের সময় মুসলমান নারীদের মতো মাথায় ওড়না জড়িয়ে নিজেকে ঢেকে নেন কেট। এরপর মেঝেতে বসে ইমামের কোরআন তিলওয়াত শোনেন এই ব্রিটিশ রাজ পরিবারের সদস্যরা।

গত ১৫ অক্টোবর থেকে ৫ দিনের সফরে পাকিস্তানে অবস্থান করছেন প্রিন্স উইলিয়াম ও তার স্ত্রী কেট মিডলটন। জলবায়ু পরিবর্তন এবং শিক্ষায় সবার সমঅধিকারকে প্রাধান্য দিয়ে আয়োজিত হচ্ছে এই সফর। এই সফরের মাধ্যমে কমনওয়েলথের দ্বিতীয় বৃহৎ দেশটির সঙ্গে সম্পর্ক জোরদার করতে চাচ্ছে যুক্তরাজ্য।

গত মঙ্গলবার পাকিস্তানের মাটিতে পা রেখেই বিকেলে কেট ও উইলিয়াম সরকারি বাসভবনে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। উইলিয়ামের মা প্রিন্সেস ডায়ানা, ইমরান খানের বন্ধু ছিলেন।

পাকিস্তান সফরের চতুর্থ দিনে রাজদম্পতি এসওএস চিলড্রেনসে এতিমদের সঙ্গে দেখা করেন। সেখানে শিশুদের জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি ভাঙাভাঙা উর্দুতেও কথা বলেন।

কেট মিডলটন বলেন, চলতি বছরের শুরুতে আমি এই ঘটনা নিয়ে বলেছিলাম যে শিশুদের বেড়ে ওঠার জন্য একটি গ্রাম দরকার। আমি সত্যিকার অর্থে যা কল্পনা করেছিলাম, তার আদর্শ উপস্থাপন এখানে এসে দেখতে পেয়েছি।

পরে জাতীয় ক্রিকেট একাডেমির ক্রিজে গিয়ে তারা সাবেক ও বর্তমান খেলোয়াড়দের আয়োজনে কয়েক রানের ক্রিকেট খেলেন। পাকিস্তানের বর্তমান বোলিং কোচ ওয়াকার ইউনুসও সেখানে উপস্থিতি ছিলেন।

এরপর পোশাক বদল করে তারা লাহোরের বিখ্যাত বাদশাহী মসজিদে যান। বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ মসজিদ বলা হয় এটিকে।

উইলিয়ামের পরনে ক্রিম রঙের লিনেন স্যুট ছিল আর কেট পড়েছিলেন হালকা সবুজ রঙের সালওয়ার কামিজ। হেডস্কার্ফের সঙ্গে মিলিয়ে সেভাবে চুলও বেঁধে নেন তিনি।

১৯৯১ সালে একই মসজিদে হাঁটুর ওপর পোশাক পরে ঘুরতে এসে বিতর্কের জন্ম দিয়েছিলেন উইলিয়ামের মা প্রয়াত প্রিন্সেস ডায়ানা।

দেশটির মুসলমান নেতারা তখন তার পোশাকের প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন।