লিটন এখন ‘আইকন’ ক্রিকেটার!

টিবিটি টিবিটি

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:৩৩ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২, ২০১৮ | আপডেট: ১১:৩৩:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২, ২০১৮
ফাইল ছবি

নির্বাচনসহ বিভিন্ন কারণে এ বছর হচ্ছে না বিপিএল। তবে তাই বলে দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় ক্রিকেট উৎসবের পরবর্তী আসর যে অনেক পিছিয়ে যাচ্ছে, তেমনটিও নয়। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী বছরের প্রথম সপ্তাহেই মাঠে গড়াবে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের ষষ্ঠ আসর। আর সেটিকে সামনে রেখে ইতোমধ্যে প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে আয়োজক বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল।

মাঠের বাইরে উশৃঙ্খল আচরণের শাস্তি এবং মাঠে বাজে ফর্মের কারণে আগেই জাতীয় দল থেকে বাদ পড়েছেন সাব্বির রহমান রুম্মন। এবার বিপিএলেও কদর কমছে এ হার্ডহিটিং ব্যাটসম্যানের। এবার আর ‘আইকন’ ক্রিকেটার থাকছেন না সাব্বির। গতবার সিলেট সিক্সার্সের ‘আইকন’ থাকলেও এবার বিপিএলে সাত আইকনের বাইরে চলে গেছেন তিনি।

সাব্বির একা নন, এবার ‘আইকন’ থাকছেন না সৌম্য সরকারও। প্রসঙ্গত, আগেরবার চট্টগ্রাম ভাইকিংসের আইকন ছিলেন এ বাঁহাতি ওপেনার। সাব্বির-সৌম্যর কপাল পুড়লেও ভাগ্য খুলেছে ইনফর্ম লিটন কুমার দাস এবং আবার নিজেকে খুঁজে পাওয়া কাটার মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমানের।

বিপিএলের এবারের আসরে নতুন ‘আইকন’ হয়েছেন লিটন ও মোস্তাফিজ। এদিকে, প্রথমবারের মতো ‘আইকন’ হলেও পুরোনো দল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সে থাকা হচ্ছে না লিটন দাসের। নিয়ম অনুযায়ী, কোনো দলে দুজন ‘আইকন’ থাকার সুযোগ নেই।

বলার অপেক্ষা রাখে না, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের ‘আইকন’ তামিম ইকবাল। লিটনও গতবার ছিলেন কুমিল্লায়। তবে এবার যেহেতু ‘আইকন’ ক্যাটাগরিতে পড়ে গেছেন, তাই লিটনকে আর রাখতে পারছে না কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স।

লিটনের পাশাপাশি ‘আইকন’ ক্রিকেটার হওয়ার পরও পুরোনো দল রাজশাহী কিংসে থাকতে পারছেন না মুশফিকুর রহীম। আগেরবার রাজশাহীর ‘আইকন’ ছিলেন তিনি। তার সাথে খেলা মোস্তাফিজ এবার নতুন করে ‘আইকন’ হওয়ায় রাজশাহী শিবিরেও দুই ‘আইকন’ রাখার সুযোগ থাকছে না।

বিপিএল গর্ভনিং কাউন্সিলের উচ্চ পর্যায়ের এক ঘনিষ্ঠ সূত্র নিশ্চিত করেছে, রাজশাহী কিংস মুশফিকুর রহীমের বদলে ফর্ম ফিরে পাওয়া মোস্তাফিজকেই ‘আইকন’ হিসেবে বেছে নিয়েছে। তার মানে, মুশফিককেও এবার আর রাজশাহীর পক্ষে খেলতে দেখা যাবে না।

আগেই জানা, মাশরাফি বিন মর্তুজা রংপুর রাইডার্সের, সাকিব ঢাকা ডায়নামাইটসের ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ খুলনা টাইটান্সের ‘আইকন’।

সাথে তামিম ইকবাল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স এবং মোস্তাফিজ রাজশাহী কিংসের ‘আইকন’ থাকছেন। সেক্ষেত্রে মুশফিকুর রহীম এবং লিটন দাসকে হয় সিলেট সিক্সার্স, না হয় চট্টগ্রাম ভাইকিংসের ‘আইকন’ হতে হবে। তবে তাদের কাকে কোন দল বেছে নেবে, তা এখনও নিশ্চিত নয়।

বিপিএল গর্ভনিং কাউন্সিল আগেই জানিয়ে দিয়েছিল, আগেরবার খেলা দেশি ও বিদেশিদের মধ্য থেকে ‘আইকন’সহ মোট চার ক্রিকেটারকে রেখে দেয়া যাবে। ইতোমধ্যেই সে তালিকা জমা দেয়ার সময় শেষ হয়ে গেছে।

বিপিএল কর্তৃপক্ষ আনুষ্ঠানিকভাবে এখনও সাত দলের থেকে যাওয়া চারজন করে ২৮ ক্রিকেটারের নাম ঘোষণা করেনি। তবে বিভিন্ন ফ্রাঞ্চাইজি সূত্রে দলগুলোর ধরে রাখা চার ক্রিকেটারের নাম জানা গেছে।

এদিকে ৩০ সেপ্টেম্বর ছিল বিপিএলের ধরে রাখা খেলোয়াড়দের তালিকা জমা দেওয়ার শেষ তারিখ। নির্ধারিত সময়ে চিটাগাং ভাইকিংস ছাড়া বাকি ছয়টি দলই তালিকা জমা দিয়েছে। আসন্ন আসরে অংশ নেওয়া হবে না, তাই চিটাগাং কিংসের পক্ষ থেকে রিটেইনড খেলোয়াড়দের তালিকা দেওয়ারও বালাই ছিল না।

বিশেষ সূত্রের খবর অনুযায়ী, চারজন খেলোয়াড় ধরে রাখার সুযোগ হাতছাড়া করতে চায়নি প্রায় প্রতিটি দলই। এমনকি অন্য দল ধরে রাখেনি- এমন খেলোয়াড়দেরও দলে পেতে তোড়জোড় শুরু হয়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজিদের মধ্যে। আর সেক্ষেত্রে জাতীয় দলের খেলোয়াড়রাই রয়েছেন ফ্র্যাঞ্চাইজি কর্তৃপক্ষগুলোর পছন্দের তালিকার শীর্ষে।

বিপিএলের চতুর্থ আসরের শিরোপাজয়ী দল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ধরে রেখেছে অধিনায়ক তামিম ইকবালকে। তার সাথে আবারও অন্যতম জনপ্রিয় দলটির হয়ে মাঠ মাতাবেন ইমরুল কায়েস, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ও শোয়েব মালিক।

বিপিএলের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন রংপুর রাইডার্স আগামী আসরের জন্য দলে ধরে রেখেছে অধিনায়ক ও শিরোপা জয়ের নায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাকে। শুধু মাশরাফিই নন, রংপুরে গত আসরে খেলেছেন এবং আগামী আসরেও খেলবেন এমন খেলোয়াড়দের মধ্যে আরও রয়েছেন মোহাম্মদ মিঠুন, নাজমুল ইসলাম অপু ও রুবেল হোসেন।

ফাইনালে যে দলকে হারিয়ে শিরোপার স্বাদ পেয়েছিল রংপুর, সেই ঢাকা ডায়নামাইটস অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের পাশাপাশি ধরে রেখেছে কাইরন পোলার্ড, সুনীল নারাইন ও রভম্যান পাওয়েলকে।

গত আসরে ভালো দল গড়ে প্রত্যাশা অনুযায়ী পারফরম্যান্স দেখাতে না পারা দল রাজশাহী কিংস দলের অন্যতম বড় অস্ত্র মুস্তাফিজুর রহমানকে ধরে রেখেছে। মুস্তাফিজের সাথে দলে আরও রয়ে গেছেন মেহেদী হাসান মিরাজ, মুমিনুল হক ও জাকির হাসান।

সিলেটের প্রতিনিধিত্বকারী দল সিলেট সিক্সার্স তাদের আইকন ক্রিকেটার সাব্বির রহমান ও অধিনায়ক নাসির হোসেনকে ধরে রেখেছে। পাকিস্তানি ক্রিকেটার সোহেল তানভীরও আবারও গায়ে জড়াবেন সিলেটের জার্সি।

খুলনা টাইটান্সে আইকন ও অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে দলে ধরে রেখেছে কর্তৃপক্ষ। সেই সাথে জানা গেছে, রিটেইনড খেলোয়াড়দের তালিকায় রয়েছে নাজমুল হোসেন শান্ত ও কার্লোস ব্র্যাথওয়েটের নামও।