শরীরের যেসব ব্যথাকে কখনোই অবহেলা করবেন না

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২:১৫ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১, ২০১৮ | আপডেট: ২:১৫:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১, ২০১৮

টিবিটি স্বাস্থ্য-কথাঃ প্রাত্যহিক জীবনে আমরা শরীরযন্ত্রের নানাধরনের ব্যথায় আক্রান্ত হয়ে থাকি। নানা ধরনের ব্যথা নানা রকম রোগের পূর্বলক্ষণ হতে পারে। তাই হালকা কোনও ব্যথা হলেও অবহেলা করবেন না। আজ আমরা জেনে নেবো এরকম ব্যথা সম্পর্কে যেগুলো দেখা দিলে সঙে সঙ্গেই সতর্ক হতে হবে।

১) হঠাৎ করে তীব্র মাথাব্যথা শুরু হলে আপনি ব্রেইন অ্যানুরিজমে আক্রান্ত হতে পারেন। এটি তীব্রতর হলে আপনার ব্লাড ভেসেল ফেটে যেতে পারে। যেটা থেকে আপনি স্ট্রোকে আক্রান্ত হতে পারেন অথবা মস্তিষ্কে রক্তপ্রবাহ হতে পারে।

২) ঠাণ্ডা কিছু খেলে দাঁত ব্যথা হলে বুঝবেন আপনার দাঁতের এনামেল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। দাঁত ব্যথা এবং দাঁত শিরশির করলেই দাঁতের ডাক্তারের শরণাপন্ন হোন।

৩) যদি আপনি আঙুলে, হাতে, হাতের তালুতে এবং কবজিতে ছড়িয়ে পড়া ব্যথা কিংবা অসাড় হওয়া অনুভূতি টের পান, তাহলে আপনি কার্পেল টানেল সিনড্রোমে ভুগছেন। তাড়াতাড়ি চিকিৎসকের শরণাপন্ন না হলে আপনার হাতের পেশি শুকিয়ে যেতে পারে এবং হাত স্থায়ীভাবে অবশ হয়ে যেতে পারে।

৪) বুকে ব্যথা হার্ট অ্যাটাকের অন্যতম লক্ষণ। এর মানে হলো আপনার রক্তে অক্সিজেন পৌঁছাতে সমস্যা হয়। বুকের এই ব্যথা আপনার চাপা, কাঁধ এবং গলা পর্যন্তও ছড়িয়ে যেতে পারে। এই ব্যথাকে অবহেলা করবেন না।

৫) পিঠের মাঝামাঝি জায়গায় ব্যথার সঙ্গে যদি জ্বর এবং সর্দি থাকে তাহলে সেটা কিডনি ইনফেকশনের লক্ষণ হতে পারে। চিকিৎসা না নিলে এই ইনফেকশন থেকে কিডনিতে রক্তক্ষরণ হতে পারে।

৬) কোমর থেকে ব্যথা শুরু হয়ে পায়ের দিকে ছড়িয়ে পড়তে পারে- এ ব্যথাটিকে বলে স্কিয়াটিকা। পায়ের স্কিয়াটিক টিস্যুতে চাপ পড়ার কারণে এই ব্যথাটি হয়। এই ব্যথার সঙ্গে সঙ্গে যদি আপনার প্রস্রাবের সমস্যা দেখা দেয় তাহলে এটা হতে পারে কডা ইকুইনা সিনড্রোম নামক একটি বিরল রোগের লক্ষণ। যেটা থেকে আপনি স্থায়ীভাবে প্যারালাইসিসের শিকার হতে পারেন।

৭) শিরদাঁড়ার নিচে ডানদিকে ব্যথা হলে এবং সেইসঙ্গে জ্বর, সর্দি অথবা বমি বমি ভাব হলে আপনি ধরে নিতে পারেন আপনার অ্যাপেনডিসাইটিস হয়েছে। দেরি না করেই অপারেশন করানোর জন্য ছুটুন। নতুবা অ্যাপেনডিক্স ফেটে মৃত্যুর মুখোমুখি হতে পারেন।

৮) আপনার পায়ে খিল ধরে যেতেই পারে যে কোনও কারণেই। কিন্তু এরসঙ্গে যদি যুক্ত হয় প্রদাহ, ফোলাফোলা ভাব তাহলে আপনার শরীরে ক্ষতিকারক একটি রক্তপিণ্ড থাকতে পারে। এরকম লক্ষণ দেখা দিলে ডাক্তারের সঙ্গে কথা বলে আলট্রাসনোগ্রাম করান।