শরীয়তপুর ডেঙ্গুতে গৃহবধুর মৃত্যু

প্রকাশিত: ৪:২৪ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২০, ২০১৯ | আপডেট: ৪:২৪:অপরাহ্ণ, আগস্ট ২০, ২০১৯
ছবি: টিবিটি

শরীয়তপুরের ডামুড্যায় উপজেলায় ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে সুরাইয়া বেগম (৩৫) নামে এক নারী মারা গেছেন। সোমবার (১৯ আগষ্ট) দিবাগত রাত ২টার সময় তিনি মারা। সুরাইয়া বেগম ডামুড্যা পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ ডামুড্যা এলাকার কামাল ঢালীর স্ত্রী। তাদের দুই ছেলে এক মেয়ে রয়েছে।

সুরাইয়া বেগমের স্বামী কামাল হোসেন ঢালী জানান, গত কিছুদিন আগে জ্বর হলে সুরাইয়াকে ঢাকায় নিয়ে পরীক্ষা করানো হয়। সেখানে ডেঙ্গু রোগ ধরা পড়ে। চিকিৎসা করানোর পর সে কিছুটা সুস্থ্য হয়ে ওঠে।

ঢাকা থেকে দেশে আসার পর তিনদিন পূর্বে আবারও জ্বর ওঠে সুরাইয়া বেগমের। তখন ডামুড্যা উপজেলার হ্যাপি কিèনিকে নিয়ে পরীক্ষা নিরিক্ষা করানোর পর আবারও ডেঙ্গু রোগ ধরা পরে। এরপর বাড়িতেই চিকিৎসাধীন ছিলেন সুরাইয়া বেগম।

সোমবার (১৯ আগষ্ট) দিনগত মধ্যরাতে অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকা নেয়ার জন্য উদ্যোগ নেন পরিবারের লোকজন। ঢাকায় রওয়ানা করার আগেই সুরাইয়া বেগমের মৃত্যু হয়।

শরীয়তপুরের সিভিল সার্জন ডা. মো খলিলুর রহমান বলেন, আমরা জানতে পেরেছি ডামুড্যা উপজেলায় সুরাইয়া বেগম নামে এক গৃহবধ‚ ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে। কিন্তু এ বিষয়ে এখনও আমরা কোন কাগজপত্র পাইনি। জানার জন্য আমাদের লোক নিহতের বাড়িতে গিয়েছে। বাড়িতে এখন শোক চলছে। তাই এখনও কাগজপত্র হাতে পাইনি। আর কাগজপত্র না পেলেতো নিশ্চিত করে বলতে পারছিনা সে ডেঙ্গু জ¦রে মারা গেছে।

তিনি আরও বলেন, শরীয়তপুর জেলায় এ পর্যন্ত ৩২৬ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। তারাই সবাই সদর হাসপাতাল সহ বিভিন্ন উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। বর্তমানে ৫৬ জন ডেঙ্গু রোগী জেলার বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। বাকিসব চিকিৎসা শেষে সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন।