শাহরুখের ‘ক্ষমা চাওয়া’র বার্তার পাল্টা জবাব দিলেন রাসেল

টিবিটি টিবিটি

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬:২২ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৪, ২০২১ | আপডেট: ৬:২২:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৪, ২০২১

প্রথম ম্যাচে জিতলেও মুম্বাইয়ের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় ম্যাচে হারতেই কলকাতা নাইট রাইডার্স শিবিরে অশান্তির কালো মেঘ! কারণ ম্যাচ হারের জন্য কেকেআর মালিক শাহরুখ খান ক্ষমা চাওয়ার কথা বললেও দলের তারকা ক্রিকেটার আন্দ্রে রাসেল তাঁর সঙ্গে সহমত নন।

ম্যাচের পরেই সরাসরি হতাশা ব্যক্ত করেছিলেন নাইট মালিক শাহরুখ খান। জানিয়ে দিয়েছিলেন, দলের খেলায় তিনি হতাশ। তারপরেই শাহরুখের টুইট নিয়ে মুখ খুললেন আন্দ্রে রাসেল।

দীনেশ কার্তিকের সঙ্গে জুটি বেঁধে কেকেআরকে জয়ের তীরে পৌঁছে দেওয়ার দায়িত্ব ছিল রাসেলের ওপর। তবে সেই দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ তিনি। তারপরেই শাহরুখের টুইটের বক্তব্য দিতে গিয়ে রাসেল জানান, কিং খানের মতামতকে তিনি সমর্থন করেন। এ নিয়ে কেকেআর ভক্তদের মনে গন হচ্ছে উদ্বিগ্নতার কালো মেঘ।

ঠিক কী ঘটেছিল?

মঙ্গলবার মুম্বাইয়ের বিরুদ্ধে জিততে কেকেআরের দরকার ছিল ৩০ বলে মাত্র ৩১ রান। হাতে ছিল ৬টি উইকেট। সেখান থেকেই ১০ রানে হার! কেকেআর সমর্থকরা যেমন এই হার বিশ্বাস করতে পারছেন না, তেমনই মানতে পারেননি ফ্র্যাঞ্চাইজির মালিক শাহরুখ খানও। কিং খানের সাফ কথা, এই পারফরম্যান্সের জন্য সমর্থকদের কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিত দলের। সটান টুইট করে বলে দিয়েছেন, “দলের এই পারফরম্যান্স হতাশাজনক। আমাদের উচিত সমর্থকদের কাছে ক্ষমা চেয়ে নেওয়া।”

সচরাচর কিং খানকে দলের হার নিয়ে তেমন হতাশা প্রকাশ করতে দেখা যায় না। বরং তিনি হারের পর দলের তারকাদের মানসিকভাবে চাঙ্গা করার চেষ্টা করেন। কিন্তু মঙ্গলবারের এই হারের যন্ত্রণা এতটাই বেশি যে কিং খানও নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারেননি। তারপরই তাঁর ওই টুইট।

কিন্তু দলের মালিকের এই বক্তব্যেই সহমত নন রাসেল। ম্যাচের পর সাংবাদিক সম্মেলনে ক্যারিবিয়ান তারকাকে শাহরুখের টুইটের প্রসঙ্গে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, “আমি শাহরুখের টুইটকে সমর্থন করলেও দিনের শেষে এটা ক্রিকেট খেলা। যেখানে যখন তখন পরিস্থিতি ঘুরে যেতে পারে। যতক্ষণ না ম্যাচ শেষ হচ্ছে কিছু বলা যায় না।”

পাশাপাশি দলের ঘুরে দাঁড়ানোর ব্যাপারেও আশাপ্রকাশ করে রাসেল বলেন, “আমরা এখনও আত্মবিশ্বাসী। আমরা ভাল ক্রিকেট খেলছি এবং ছেলেদের প্রতি আমি গর্বিত। হ্যাঁ, আমরা অবশ্যই হতাশ। তবে এখানেই কিন্তু সব শেষ নয়। এটা কেবল দ্বিতীয় ম্যাচ ছিল। আমরা এর থেকে অবশ্যই শিক্ষা নেব।”

এর সঙ্গেই ক্যারিবিয়ান তারকার সংযোজন, “এটা কেবল ক্রিকেটের একটি ম্যাচ। আমি ১০০রও বেশি টি-২০ ম্যাচ খেলেছি। এমনও দেখেছি একটি দল চালকের আসনে রয়েছে এবং আচমকাই কয়েকটি উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে গেল। এরপর নতুন ব্যাটসম্যান ক্রিজে এসে তেমন পারফর্ম করতে পারেনি। এদিনও তেমনটাই হয়েছিল। আশা করি এই ভুল থেকে শিক্ষা নিয়ে আগামিদিনে আমরা ভাল পারফর্ম করব। ছেলেদের উপর আমার বিশ্বাস ও আত্মবিশ্বাস রয়েছে।”

রাসেলের এই বক্তব্যের পরই টিমের অন্দরে যে ‘সবকিছু ঠিকঠাক’ নেই, এমনই আশঙ্কা প্রকাশ করতে শুরু করেছেন নাইটভক্তরা। এখন দেখার এই জল কতদূর গড়ায়?

এদিকে, জৈব সুরক্ষা বলয়ে থেকে শুরু দর্শকশূন্য স্টেডিয়াম, কড়া কোভিডবিধি সত্ত্বেও ফের করোনার হানা আইপিএলে। এবার মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হলেন দিল্লি ক্যাপিটালসের তারকা ক্রিকেটার আনরিক নর্টজে।

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ওয়ানডে সিরিজের প্রথম দুটি ওয়ানডে ম্যাচ খেলার পর সম্প্রতি মুম্বাইয়ে এসেছিলেন এই প্রোটিয়া পেসার। আপাতত মুম্বাইয়ে সাতদিনের কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন তিনি। করোনার নেগেটিভ রিপোর্ট নিয়ে এদেশে এলেও কোয়ারেন্টাইন থাকার সময়ই নতুন করে পরীক্ষা করা হয় নর্টজের। সেই রিপোর্টই এবার পজিটিভ এল। আপাতত কোভিডবিধি মেনে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে তাঁকে।