শুধু নামেই নন, উনি সত্যিই হাসিনা: সালমান

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:১৯ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৯, ২০১৯ | আপডেট: ১২:২০:পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৯, ২০১৯
সংগৃহীত ছবি

বলিউডের দুই সুপারস্টার সালমান খান ও ক্যাটরিনা কাইফ বঙ্গবন্ধু বিপিএলের উদ্বোধনী কনসার্ট মাতিয়েছেন। রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আসেন। সন্ধ্যা ৬টা ৫৫ মিনিটে তিনি বঙ্গবন্ধু বিপিএলের উদ্বোধন করেন।

রাত ১০টা ২০ মিনিটে মঞ্চে ওঠেন ‘ভাইজান’ খ্যাত সালমান খান। তার বিখ্যাত ‘ও ও জানে জানা’ গান দিয়ে পারফরম্যান্স শুরু করেন। এরপর ‘মুজসে সাদি কারোগে, মুন্নি বাদনাম হুয়ি, বেবি কো বেস পাছান্দ হে, জুম্মে কি রাত, স্লো মোশন, সোয়াগ সে সওগাত ও মুন্না বদনাম হুয়া’ গানে নাচেন সালমান খান। এর আগে ক্যাটরিনা পারফর্ম করেন চারটি গানে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাদের পারফরম্যান্স উপভোগ করেন প্রেসিডেন্ট বক্সে বসে। আলাদা পারফরম্যান্স শেষে সালমান ও ক্যাটরিনা মঞ্চে আসেন একসঙ্গে। মেতে ওঠেন খুনসুটিতে। প্রায় ৯ মিনিট তারা একসঙ্গে ছিলেন মঞ্চে।

সালমান খান বলেন, ‘খুব আশ্চর্য হচ্ছি, এখানেই যদি এত মানুষ থাকে তাহলে ঘরে টিভির পর্দায় কত মানুষ আমাদের দেখছে! ধ্রুপদী ভালোবাসা পেলাম তোমাদের থেকে।’

এরপর ক্যাটরিনা ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ‘আমি বলতে চাই, জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু। বাংলাদেশ, তোমাদের ভালোবাসি।’

সালমান খান আবার বলেন, ‘দেখলেন ও (ক্যাটরিনা) কী সুন্দর বাংলা বলল! মনে হচ্ছে ও হিন্দির থেকে বাংলাটাই ভালো বলে। ও যখন হিন্দি বলে তখন আমি কিছুই বুঝি না।’

‘সালাম বাংলাদেশ। কেমন আছো’- বলেছেন সালমান।

পাশ থেকে সঞ্চালক জুয়েল বাংলায় যা বলেছেন, সালমানও তাকে অনুকরণ করেন। বলেন, ‘আমি তোমাদের ভালোবাসি। আমি সবাইকে ভালোবাসি। আমি আমাকেও ভালোবাসি।’

নিয়মিত বাংলাদেশে আসার ইচ্ছা পোষণ করে সালমান বলেছেন, ‘তোমরা যদি আমাকে দাওয়াত দাও, আমি অবশ্যই আবার আসব।’

পাশে থাকা ক্যাটরিনা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ। উনি আমাদেরকে এখানে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। আমাদের সুযোগ হয়েছিল প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার। আমরা খুবই উৎফুল্ল তার সাক্ষাৎ পেয়ে। আমি আবারও বলছি বাংলাদেশ, তোমাদের ভালোবাসি।’

এরপর সালমান খান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘আমরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকেও ভালোবাসি। শুধু নামেই তিনি হাসিনা নন…উনি সত্যিই হাসিনা। তার সুন্দর চেহারা, লাবণ্যময়ী হাসি, তার মর্যাদা এবং ব্যক্তিত্ব অপূর্ব। তার চোখ খুবই সুন্দর। আমরা আপনাকে ভালোবাসি।’

‘আমরা এখানে এক হয়েছি বিশেষ উদ্দেশ্যে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী উদযাপনে এই বিপিএল। তিনি বাংলাদেশকে সৃষ্টি করেছেন। তিনি ফাদার অব দ্য নেশন। তার জন্ম শতবার্ষিকীতে আমি পুরো বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানাচ্ছি’- বলেন সালমান।

এখানে আসার আগে তার বাবা তাকে কবি কাজী নজরুল ইসলামের কথা বলেছিলেন বলে জানালেন সালমান, ‘আমি এখানে আসার আগে আমার বাবাকে গিয়ে বললাম, আমি বাংলাদেশে যাচ্ছি। বাবা বলল,‘‘তুমি যদি স্টেজে উঠো, অবশ্যই একজনের নাম বলবে; কবি কাজী নজরুল ইসলাম।’’ আমার বাবা তার বড় ভক্ত। আমাকে বলে দিয়েছে অবশ্যই যেন আমি উনার নাম স্টেজে বলি।’

বিসিবি সভাপতিকে ধন্যবাদ জানিয়ে সালমান বলেন, ‘বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান পাপনকে ধন্যবাদ জানাই এবং বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের চেয়ারম্যান শেখ সোহেলকে আমি ধন্যবাদ জানাই। তার নামটা আমি হৃদয় থেকে বলছি কারণ উনার নামে আমার ছোট ভাই আছে। দেখুন এ আয়োজন। এর পেছনে উনার অবদান বলে শেষ করা যাবে না। অসাধারণ কাজ করেছেন।’

শুভেচ্ছা বক্তব্য শেষে সালমান খান ও ক্যাটরিনা যৌথ পারফরম্যান্স উপহার দেন। দুজনের ব্যবসা সফল ছবি ‘টাইগার জিন্দা হ্যা’ সিনেমার ‘সোয়াগ সে সওগাত’ গানে পারফর্ম করেন। এরপর আতশবাজির ঝলকানি, হাজারো রঙের খেলায় শেষ হয় বঙ্গবন্ধু বিপিএলের কনসার্ট।