শুধু নেইমার-এমবাপ্পেকে কেনার অর্থেই ১৯ বছর দল চালিয়েছে আটলান্টা!

টিবিটি টিবিটি

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫:৪০ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৩, ২০২০ | আপডেট: ৫:৪০:অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৩, ২০২০

তাঁরা কেউই গোল করেননি। কিন্তু চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে প্যারিস সেন্ট জার্মেই-কে সেমিফাইনালে তোলার পিছনে তাঁদের দু’জনের অবদান কম নয়। তাঁরা ব্রাজিলীয় তারকা নেমার দ্য সিলভা ও ফরাসি তারকা কিলিয়ান এমবাপ্পে।

বুধবার রাতে আটলান্টার বিরুদ্ধে তাঁরা গোল করেননি ঠিকই। কিন্তু দুই তারকার গোলের গন্ধ মাখা পাস থেকেই পিএসজি-র হয়ে গোল করেন মার্কোস ও মোতিং। তার সুবাদেই খেলার শেষ তিন মিনিটে দুই গোল করে পিছিয়ে থাকা পিএসজি পৌঁছে যায় চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ চারে।

ম্যাচ শেষের পরে নেমারের ড্রিবলিং নিয়ে জোর চর্চা হচ্ছে। আটালান্টার বিরুদ্ধে মোট ১৬ বার বিপক্ষের ফুটবলারকে ড্রিবল করেছেন ব্রাজিলীয় তারকা। সেরা দুই তারকার ক্লাব ছেড়ে যাওয়ার গুঞ্জনের মধ্যেই পিএসজি-র মালিক নাসের আল খিলাইফি বলেছেন, ক্লাব ছেড়ে যাবেন না নেমার ও এমবাপ্পে।

দুই তারকাকে নিয়েই চলছে যত আলোচনা। আর এই আলোচনার থেকেই উঠে এসেছে চমকপ্রদ এক তথ্য।কী সেই তথ্য? ইএসপিএন টুইট করেছে, ২০০১-২০০২ মরসুমে আটালান্টা তাদের গোটা স্কোয়াডের জন্য যত অর্থ খরচ করেছে, পিএসজি নেমার ও এমবাপ্পের পিছনে তার চেয়ে বেশি খরচ করেছে।

ট্রান্সফার মার্কেটের হিসেব মতো, ২০১৭ সালে ২৪.৪২ কোটি ডলার খরচ করে বার্সেলোনা থেকে নেমারকে আনে পিএসজি। তার পরের বছরেই মোনাকো থেকে ১৪.৮৫ কোটি ডলারে এমবাপ্পেকে কেনে প্যারিস সেন্ট জার্মেই। দুই তারকাকে দলে নিতে পিএসজি খরচ করেছিল ৩৯.২৭ কোটি ডলার।

অন্য দিকে গত ১৯ বছরে দলবদলে আটালান্টা খরচ করেছে ৩৮.৫৩ কোটি ডলার। অথচ গতকালের কোয়ার্টার ফাইনালে একটা সময়ে আটলান্টাই এগিয়েছিল।

শেষ তিন মিনিটে প্যারিস সেন্ট জার্মেই’র দুই তারকা আটলান্টার স্বপ্ন ভেঙে দেন সতীর্থদের দিয়ে গোল করিয়ে।