শেখ হাসিনা ও তার পরিবার শতভাগ দুর্নীতিমুক্ত: গণপূর্তমন্ত্রী

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৮:১০ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৪, ২০২০ | আপডেট: ৮:১৩:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৪, ২০২০
গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী শ.ম রেজাউল করিম। ছবি: সংগৃহীত

গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী শ.ম রেজাউল করিম বলেন, দেশের উন্নয়নে আমাদের সবাইকে দুর্নীতি এড়িয়ে চলতে হবে। দুর্নীতি একটি দেশের উন্নয়নে বড় ধরনের বাধা। শেখ হাসিনা ও তার পরিবার শতভাগ দুর্নীতিমুক্ত। তার পরিবারের সদস্যরা চাকরি করে খান। বোন শেখ রেহেনা গণপরিবহনে করে চলেন।

শুক্রবার (২৪ জানুয়ারি) দুপুরে জেলার নাজিরপুর উপজেলার বাবুরহাট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৫০ বছর পূর্তি উৎসবে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী শ.ম রেজাউল করিম বলেন, শেখ হাসিনার সরকার শিক্ষাবান্ধব সরকার। তাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এদেশের শিক্ষা ব্যবস্থাকে সম্প্রসারণের জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছেন। তিনি দেশের নাগরিকদের সুনাগরিক ও সুশিক্ষিত হিসাবে গড়ে তুলতে অবিরাম পরিশ্রম করে চলছেন। তাই তিনি ডিগ্রি পর্যন্ত বিনা বেতনে পড়ার সুযোগ করে দিয়েছেন।

তিনি বলেন, দেশের শিক্ষা ব্যবস্থাকে জাতীয়করণ করতে সব কার্যক্রম চলছে। একজন শিশুও যাতে পাঠ থেকে ঝড়ে না পড়ে সে জন্য দেশের শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নয়নে কাজ চলছে। শিক্ষা গ্রহণের ব্যবস্থা তিনি প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে বই প্রদান করছেন।

বিদ্যালয়ের পরিচালনা পরিষদের সভাপতি মো. আতিয়ার রহমান চৌধুরী নান্নুর সভাপতিত্বে ও অনুষ্ঠান উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক মো. জাহিদুল ইসলাম জাহিদের সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন পিরোজপুর জেলা পুলিশ সুপার মো. হায়াতুল ইসলাম খান, ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক নাহিদ ফারজানা সিদ্দিকী, গণপূর্তের নির্বাহী প্রকৌশলী বিশ্বনাথ বনিক, এলজিইডি নির্বাহী প্রকৌশলী সুশান্ত রঞ্জন রায়, শিক্ষা অধিদফতরের নির্বাহী প্রকৌশলী প্রতিভা সরকার, ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফাহমি মো. শায়েফ প্রমুখ।
বিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রদের মধ্য থেকে বক্তব্য রাখেন পিরোজপুর সরকারি সোহরাওয়ার্দী কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ মো. দেলোয়ার হোসেন, বিআইডব্লিউটিএর অতিরিক্ত চিফ ইঞ্জিনিয়ার এম আতাহার আলী সরদার, প্রদীপ কুমার দত্ত, ইউপি চেয়ারম্যান মাস্টার মনিরুজ্জামান আতিয়ার, উপজেলা ছাত্রলীগ আহ্বায়ক মো. তরিকুল ইসরাম চৌধুরী তাপস, মো. বদিউজ্জামান ভুইয়া প্রমুখ।

এর আগে মন্ত্রী প্রায় ৩ কোটি ১৭ লাখ টাকা ব্যয়ে ওই বিদ্যালয়ের জন্য বরাদ্দকৃত নতুন একটি চারতলা একাডেমিক ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন। এ উপলক্ষে দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের আযোজন করা হয়।

এর আগে সকাল সোয়া ১০টায় উপজেলা পরিষদ চত্বরের ভেতর মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ভবন সংলগ্ন বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল উদ্বোধন করেন। পরে এ উপলক্ষে উপজেলা স্বাধীনতা মঞ্চে উপজেলা ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকতা সায়েফ মো. ফাহমির সভাপতিত্বে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

নাজিরপুর প্রেসক্লাবের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এসএম রোকনুজ্জামানের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে এ দেশ স্বাধীন হতো না। তিনি তার (বঙ্গবন্ধু) জীবনের অধিকাংশ সময় এ জাতির জন্য কারাগারে থেকেছেন। পাকিস্তান সরকার তাকে পূর্বপাকিস্তানের রাষ্ট্রপ্রধানের দায়িত্ব পালনের প্রস্তাব দিলেও তিনি তা প্রত্যাখ্যান করেছেন। তাকে পাকিস্তান সরকার যতবার পশ্চিম পাকিস্তানের কারাগারে নিয়েছে ততবার তিনি বলেছেন, আমার ফাঁসি হলেও তোমরা আমার লাশটা স্বদেশে (বাংলাদেশে) পাঠিয়ে দিও।

এ সময় তিনি আরও বলেন, শীঘ্রই পিরোজপুর-১ আসনের সব অফিস-আদালতসহ দেশের গণপূর্তের আওতাধীন সব অফিসের সামনে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল স্থাপন করা হবে। প্রায় ১২ লাখ টাকা ব্যয়ে এ ম্যুরালটি নির্মাণ করা হয়েছে।