‘শেখ হাসিনা ফিরেছিলেন বলেই বাংলাদেশ আজ আলোর পথে’

প্রকাশিত: ৯:৩৪ অপরাহ্ণ, মে ১৮, ২০২১ | আপডেট: ৯:৩৪:অপরাহ্ণ, মে ১৮, ২০২১

ঝিকরগাছা (যশোর) প্রতিনিধি: যশোর-২ (চৌগাছা-ঝিকরগাছা) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলাম মনির বলেছেন, ১৯৮১ সালের ১৭ মে আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা দেশে প্রত্যাবর্তন করেছিলেন বলেই অন্ধকার থেকে বাংলাদেশ আজ আলোর পথে।

বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৪১তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে সোমবার রাতে এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় প্রধান বক্তার বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে রাত সাড়ে ৮টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত আলোচনা সভায় জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যয়ের আওয়ামী লীগ এর সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন।

মনিরুল ইসলাম মনির বলেন, একজন শেখ হাসিনা দেশে এসেছিলেন বলেই ৭৫ ও ৭১ এর খুনিদের বিচার ও রায় কার্যকর হয়েছে। শেখ হাসিনা স্বদেশে প্রত্যাবর্তন করেছিলেন বলেই আমরা মহাকাশ বিজয় করেছি, সমুদ্র বিজয় করেছি, গঙ্গার পানির ন্যায্য হিস্যা পেয়েছি, ছিটমহল সমস্যার সমাধান হয়েছে, পার্বত্য শান্তি চুক্তি হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, একজন শেখ হাসিনা ফিরেছেন বলেই নিজস্ব অর্থায়নে মেগা প্রকল্প পদ্মাসেতু করতে পেরেছি। করতে পেরেছি দক্ষিণ এশিয়ার প্রথম দেশ হিসেবে নদীর তলদেশে বঙ্গবন্ধু কর্ণফুলী টানেল, মেট্রোরেল, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রসহ হাজারো উন্নয়ন। একজন শেখ হাসিনা স্বদেশে এসেছিলেন বলেই হেনরি কিসিঞ্জারের সেই উপমার তলাবিহীন ঝুঁড়ি! আজ উপচে পড়া ঝুঁড়ি! আজ আমরা নিম্নআয়ের দেশ থেকে মধ্যম আয়ের দেশ ও সেখান থেকে উন্নয়নশীল দেশ।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম মুকুলের সভাপতিত্বে ও উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা এনামুল হক মনির সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুছা মাহমুদ।

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে আলােচনায় অংশগ্রহণ করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাস্টার এনামুল কবীর, সাবেক সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক মীর বাবরজান বরুণ, জেলা কৃষকলীগ নেতা আকবর হোসেন জাপানী, হাজিরবাগ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ডা. মোস্তফা আসাদুজ্জামান, শংকরপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক শরিফুল ইসলাম, পানিসারা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের, বাঁকড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাস্টার হেলালউদ্দীন খান, নাভারণ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম বুলি, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজল রায়হান, নির্বাসখোলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীরে প্রচার সম্পাদক আলমগীর হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ও সদ্য সাবেক ডাকসু নেতা মাহমুদুল হাসান বাবু, শংকরপুর ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক নুরুল হক গাজী, বাঁকড়া ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা মাস্টার রকিবুল হাসান মিন্টু, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা লোটাস জোহা, আবু সাঈদ মিলন, আসাদুজ্জামান আসাদ, শেখ ইমরান, ফয়েজ মজনু, মিজানুর রহমান মিজান, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ নেতা জয়নাল আবেদীন বাপ্পি, সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আজমল হোসেন, ঝিকরগাছা উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা, জি এম শাহীন রেজা, তানভীর রাব্বি, তাজবিউল হাসান অপূর্ব, আবীর রহমান, মোঃ এলান হক, জাকারিয়া কবীর জিম, ইছানুর রহমান, ওয়াহিদ রেহমান, লিমন জোহা, গালিব মাহমুদ প্রমুখ।

উল্লেখ্য, করোনাকালীন সময়ে ঝিকরগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে দলকে সুসংগঠিত রাখার জন্য দলীয় ও জাতীয় দিবস এবং রাজনৈতিক বিভিন্ন কর্মকাণ্ড জুম অ্যাপসের মাধ্যমের ভার্চ্যুয়ালি অনুষ্ঠিত হচ্ছে।