শ্রমিকের কাজ করেও এসএসসি পরীক্ষায় সাঙ্গাকারার জিপিএ-৫ অর্জন

প্রকাশিত: ৫:৩১ অপরাহ্ণ, জুন ৩, ২০২০ | আপডেট: ৫:৩১:অপরাহ্ণ, জুন ৩, ২০২০
ছবি: টিবিটি

জাহিদ আবেদীন বাবু, কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি: অদম্য ইচ্ছা শক্তির সামনে বাধা হয়ে দাড়াতে পারেনি দারিদ্রতা। তারই অনন্য উদাহরণ সাঙ্গাকারা দাস। জন্ম থেকেই অভাব অনটন সঙ্গের সাথী। তবুও স্বপ্ন পড়ালেখা করে বড় মানুষ হওয়ার।

শত বাধা উপেক্ষা করে এস এসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে সাঙ্গাকারা সাফল্যের সাথে উর্ত্তীন হয়েছে । সে মুক্তিযোদ্ধা কারিগরি মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ২০২০ সালে এস.এস.সি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে জিপিএ ৫ পেয়েছে। ফল প্রকাশের দিনও তাকে আমের আড়তে শ্রমিকের কাজ করতে দেখা গেছে। সে এখন স্বপ্ন দেখছে ডিপ্লোমা ইন সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং হওয়ার।

সাঙ্গাকারার যশোরের কেশবপুর উপজেলার মজিদপুর গ্রামে বসবাস। বাবা কালিপদ দাস ভ্যান চালক ও মা পার্বতী রানী দাস গৃহিনী। বাবা ভ্যান চালিয়ে যা আয় করে তা দিয়ে সংসার চলে না। তাই সে সংসারের অভাব কিছুটা দুর করতে পড়া লেখার পাশাপাশি বিভিন্ন আড়তে শ্রমিকের কাজ করে।

সাঙ্গাকারা জানান, অভাবঅনটনের সংসার চালাতে বাবাকে সহযোগিতা করতে স্কুল শেষে প্রতিদিন কেশবপুর বাজারে শ্রমিকের কাজ করি। এরপর বাড়ি ফিরে সন্ধ্যায় পড়াশুনা করি। সে সকলের কাছে আর্শীবাদ ও সহযোগিতা কামনা করেছে।

সাঙ্গাকারার বাবা কালীপদ দাস বলেন, আমরা দিন আনা দিন খাওয়া গরীব মানুষ, তাকে পড়া লেখা করাতে খুব কষ্ট হচ্ছে । সরকারি সহযোগিতা পেলে ওকে ভালো ভাবে পড়াশোনা করাতে পারতাম।