সংরক্ষিত আসনে সংসদ সদস্য হতে চান চিত্রনায়িকা অঞ্জনা

টিবিটি টিবিটি

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯:১১ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১০, ২০১৯ | আপডেট: ৯:১১:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১০, ২০১৯

৪০ বছরের বেশি সময় ধরে সিনেমায় অভিনয় করছেন ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা অঞ্জনা সুলতানা। অভিনয় ক্যারিয়ারে ৩৫০টির বেশি সিনেমায় অভিনয় করেছেন।

রাজনীতিতেও বেশ সক্রিয় জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কাপ্রাপ্ত এই অভিনেত্রী। মহিলা যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য তিনি। সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য হিসেবে আছেন আওয়ামী সাংস্কৃতিক লীগে। দলীয় অনুষ্ঠানে তাকে নিয়মিত দেখা যায়। এবার সংরক্ষিত নারী আসনে সংসদ সদস্য হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন অঞ্জনা সুলতানা।

অঞ্জনা এ বিষয়ে বলেন, ‘‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর আদর্শে রাজনীতি করছি। ‘মাদার অব হিউম্যানেটি’ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে কাজ করে যাচ্ছি। দলের বিভিন্ন কর্মকান্ডে সক্রিয়ভাবে অংশ নিচ্ছি। সংসদ সদস্য হলে মানুষের জন্য কাজ করার সুযোগ পাব।’

‘আমি চাঁদপুর থেকে সংরক্ষিত নারী আসনে সংসদ সদস্য হয়ে মানুষের জন্য কাজ করতে চাচ্ছি কিন্তু পুরো বিষয়টি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপর নির্ভর করছে। তিনি যাকে যোগ্য মনে করেন তাকেই দিবেন।’

সর্বশেষ বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে কার্যকরী পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন অঞ্জনা সুলতানা। অভিনয়, নৃত্য ও মডেলিং এই তিনটিতেই অঞ্জনা সফলতার সঙ্গে কাজ করেছেন। তার অভিনীত প্রথম সিনেমা বাবুল চৌধুরী পরিচালিত ‘সেতু’।

কিন্তু দর্শকের সামনে তিনি প্রথম আসেন মাসুদ পারভেজের ‘দস্যু বনহূর’ সিনেমার মাধ্যমে। নায়করাজ রাজ্জাকের সঙ্গে সর্বাধিক ৩০টি সিনেমার নায়িকাও অঞ্জনা। এর মধ্যে ‘অশিক্ষিত’, ‘রজনীগন্ধা’, ‘আশার আলো’, ‘জিঞ্জির’, ‘আনারকলি’, ‘বিধাতা’, ‘বৌরানী’, ‘সোনার হরিণ’, ‘মানা’, ‘রামরহিমজন’, ‘সানাই’, ‘সোহাগ’, ‘মাটির পুতুল’, ‘সাহেব বিবি গোলাম’ ও ‘অভিযান’ উল্লেখযোগ্য।

‘পরিণীতা’, ‘গাংচিল’, সিনেমার জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান অঞ্জনা। এছাড়াও দুইবার বাচসাস, দুইবার নৃত্যে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন। এছাড়া ১৯৯৮ সালে ভারতীয় উপমহাদেশে নৃত্যে প্রথম হয়ে জিতে নেন হলিউড অ্যাওয়ার্ড।