সফর নিয়ে বাংলাদেশকে শ্রীলঙ্কার ‘কড়া জবাব’

টিবিটি টিবিটি

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:০১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২০ | আপডেট: ১২:০১:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২০

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলকে শ্রীলঙ্কা সফর করতে হলে তাদের দেওয়া শর্তগুলো মেনেই করতে হবে। শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট (এসএলসি) বোর্ডের প্রধান নির্বাহী অ্যাশলি ডি সিলভা তাদের এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দেয়। আগামী রোববার দেশটির উদ্দেশে যাওয়ার কথা ছিলো টাইগারদের। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের এই সিরিজে তিনটি টেস্ট হওয়ার কথা ছিলো।

আজ বৃহস্পতিবার রাতে শ্রীলঙ্কান গণমাধ্যমে অ্যাশলি ডি সিলভা বলেন, ‘কোভিড টাস্কফোর্সের বেঁধে দেওয়া গাইডলাইন আমরা কঠোরভাবে পালন করব। বাংলাদেশ যদি বিষয়গুলোর জন্য প্রস্তুত না থাকে তাহলে সিরিজটি আমাদের স্থগিত করতে হবে। যদি এটা হয় তাহলে আগামী বছর একই সময়ে সিরিজটি অনুষ্ঠিত করার কথা আমরা চিন্তা করবো।’

সফরের জন্য যে শর্ত চাপিয়ে দিয়েছিল শ্রীলঙ্কা, সেটিকে অদ্ভুত বললেও কম হবে। সেগুলো ক্রিকেটের সংস্কৃতির সঙ্গেও যায় না। দেশটির দেওয়া এমন শর্তগুলোর কারণে সফর সম্ভব না বলে জানিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডও (বিসিবি)।

শর্ত নিয়ে শ্রীলঙ্কা তাদের নীতিমালায় জানিয়েছে, ক্রিকেটারদের ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। এই সময় হোটেল কক্ষ ত্যাগ করা যাবে না। খাবারের জন্যও কক্ষ থেকে বাইরে যাওয়া যাবে না। এটা ছিল কোয়ারিন্টিনের শর্ত। এ ছাড়া সফরে মেডিকেল টিম নেওয়া যাবে না, কিন্তু তারা মেডিকেল সাপোর্টও দেবে না। অনুশীলনের জন্য নেট বোলার দেবে না, কিন্তু বাংলাদেশ থেকে নেট বোলারও নেওয়া যাবে না।

বিসিবি জানিয়ে দিয়েছিল এভাবে সফর করা সম্ভব না। এরপরেও নিজেদের সিদ্ধান্তেই অনড় থাকে শ্রীলঙ্কা। তবে এসএলসির সেক্রেটারি মোহন ডি সিলভা আশাবাদী শর্ত মেনেই সফর করবে বাংলাদেশ। তিনি বলেন, ‘কঠোর স্বাস্থ্য নির্দেশিকা মানতে হচ্ছে আমাদের। আমি ধন্যবাদ জানাতে চাই কতৃপক্ষকে যারা কিনা এই মহামারির মধ্যেও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরাতে আমাদের সঙ্গে একমত হয়েছেন। আমরা তাদের (বিসিবি) সঙ্গে আলোচনা অব্যাহত রেখেছি এবং আমরা নিশ্চিত তাঁরা এসব বিষয়গুলো নিয়ে বোঝাপড়া করছি। আশা করছি আমরা এটার সমাধান করতে পারব। আশা করছি খুব দেরি না করেই বাংলাদেশ দল শ্রীলঙ্কা আসবে।’

এই সফরে আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের তিনটি টেস্ট হওয়ার কথা ছিল। টাইগারদের ঢাকা ত্যাগ করার কথা রয়েছে এ মাসের শেষে। টেস্ট শুরুর সম্ভাব্য তারিখ ছিল অক্টোবরের ২৪। আর বাংলাদেশ দলের ঢাকা ত্যাগ করার কথা ছিল ২৭ সেপ্টেম্বর।

-দৈনিক আমাদের সময়।