সাঙ্গাকারাকে ১০ ঘণ্টা জেরা; বিক্ষোভে উত্তাল কলম্বো

টিবিটি টিবিটি

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ৩:৪০ অপরাহ্ণ, জুলাই ৩, ২০২০ | আপডেট: ৩:৪০:অপরাহ্ণ, জুলাই ৩, ২০২০

২০১১ বিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষে ফাইনালে ফিক্সিং হয়েছিল কিনা এই ইস্যুতে উত্তাল হয়ে আছে শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটাঙ্গন। ওই বিশ্বকাপের খেলোয়াড় এবং কর্মকর্তাদের গত তিন দিন ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করছে তদন্ত কমিটি। যে তালিকায় আছেন অরবিন্দ ডি সিলভা, উপুল থারাঙ্গা। বৃহস্পতিবার বিশেষ তদন্ত কমিটি ডেকে পাঠায় ২০১১ সালের বিশ্বকাপ দলের অধিনায়ক কুমার সাঙ্গাকারাকে।

শ্রীলঙ্কার এই কিংবদন্তি উইকেটকিপার ব্যাটসম্যানকে নাকি ১০ ঘণ্টা জেরা করেছে তদন্ত কমিটি। প্রিয় ক্রিকেটারকে এভাবে জেরা করার প্রতিবাদে শ্রীলঙ্কার ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের বাইরে বিক্ষোভ করেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। তারা বলছেন, ‘কোনো প্রমাণ ছাড়াই ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অভিযোগ করা হয়েছে। আর সেই অভিযোগের ভিত্তিতে সাঙ্গাকারা এবং অন্যান্য ক্রিকেটারকে ক্রমাগত ঝামেলায় ফেলা হচ্ছে। যার প্রতিবাদ জানিয়ে এই বিক্ষোভ।’

৯ বছর আগের বিশ্বকাপ ফাইনাল ম্যাচ দিয়ে আবার নতুন করে আলোচনার ঝড় উঠেছে। সাবেক লঙ্কান মন্ত্রীর অভিযোগের জের ধরে এবার সেই ম্যাচের অধিনায়ক সাঙ্গাকারাকে সমন পাঠিয়েছিল তদন্তকারী ইউনিট। সময়মতো হাজিরা দেন সাঙ্গাকারা। তারপরই শুরু হয় দীর্ঘ জিজ্ঞাসাবাদ।

সাঙ্গাকারাকে প্রায় ৮ ঘন্টা ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এই সাবেক উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান যখন জেরারা মুখোমুখি ছিলেন, তখন শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের (এসএলসি) সামনে প্রতিবাদে নেমেছিলেন ভক্তরা। শ্রীলঙ্কার একটি তরুণ সংঘ ‘সামাজি থারুনা বালাওয়েগায়া’ এই প্রতিবাদের আয়োজন করে।

সাঙ্গাকারার আগে জেরার মুখোমুখিথ হয়েছিলেন সাবেক ক্রিকেটার ও সাবেক নির্বাচক অরবিন্দ ডি সিলভা। তাকে প্রায় সাড়ে পাঁচ ঘন্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছিল। উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান উপুল থারাঙ্গাকেও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। এই ব্যাটসম্যানকে প্রায় আড়াই ঘন্টা জেরা করা হয়।

শ্রীলঙ্কা এই তদন্ত শুরু করার পর ভারতও প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে। ভার ত প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়েছে, শ্রীলঙ্কা আসলেই ম্যাচ ফিক্সিংয়েরন কোনো প্রমাণ খুঁজে পাবে তো নাকি সবই পণ্ডশ্রম হবে।