সার্জেন্ট পরিচয়ে ৩ বিয়ে অতঃপর…

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫:২৬ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৮, ২০১৮ | আপডেট: ৫:২৬:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৮, ২০১৮

টিবিটি দেশজুড়েঃ স্ত্রীর করা মামলায় মনির হোসেন বাবু (৪৫) নামে এক ভুয়া সার্জেন্টকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ভুয়া পরিচয়ে বাবু তিনটি বিয়ে করেন। শুধু তাই নয়, সেনাবাহিনীতে চাকরি দেওয়ার নামে লাখ লাখ টাকাও হাতিয়ে নিয়েছেন তিনি।

বাবু নাটোর জেলার লালপুর থানার দুরদরিয়া গ্রামের বাসিন্দা।

পুলিশ জানায়, গতকাল শুক্রবার রাতে বগুড়ার শেরপুর উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নে রাজাপুর গ্রাম থেকে বাবুকে আটক করা হয়। বাবুর তৃতীয় স্ত্রী উম্মে হাফসা খাতুনের অভিযোগের ভিত্তিতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। আজ শনিবার দুপুরে স্বামীর বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ এনে মামলা করেছেন হাফসা।

হাফসা খাতুন জানান, সেনা সার্জেন্ট পরিচয়ে প্রায় বছরখানেক আগে বাবু তাকে বিয়ে করেন। পরে হাফসার ভাই তারিফ হোসেনকে সেনাবাহিনীতে চাকরি দেওয়ার কথা বলে চার লাখ টাকা নেন বাবু। একইভাবে চাকরি দেওয়ার কথা বলে একাধিক ব্যক্তির কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন তিনি।

এরই মধ্যে বাবু তাকে ঠিকমত ভরণ পোষণ দিতেন না। তখন হাফসার সন্দেহ হয়। স্বামীর অজান্তে নানাভাবে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ-খবর নেওয়া শুরু করেন তিনি। একপর্যায়ে স্বামীর প্রতারণার বিষয়টি ধরে ফেলেন হাফসা।

হাফছা খাতুন আরও জানান, প্রথমে তার নিজ গ্রামে একই পরিচয়ে হাসনা খাতুন নামের এক মেয়েকে বিয়ে করেন বাবু। কিন্তু নানা কারণে সেই বিয়ে বেশি দিন টেকেনি। পরবর্তী সময়ে সেনা সার্জেন্ট পরিচয়ে বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলায় রাজিয়া খাতুন নামের আরেক নারীকে বিয়ে করেন বাবু। দ্বিতীয় স্ত্রীর সঙ্গে তার সম্পর্ক রয়েছে। এর আগে বাবু গ্রামে গ্রামে ফলের ব্যবসা করতেন।

শেরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হুমায়ন কবির বলেন, ‘ভুয়া পরিচয় দানকারী মনির হোসেন বাবু একজন ভয়ঙ্কর প্রতারক। তারই স্ত্রীর অভিযোগের ভিত্তিতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে জিজ্ঞাসাবাদে মনির প্রতারণার অভিযোগ স্বীকার করেন। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।’