সিরিয়ায়ই থাকবে ইরানি সেনাবাহিনী

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬:৫৬ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ২৯, ২০১৮ | আপডেট: ৬:৫৬:পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ২৯, ২০১৮

যুক্তরাষ্ট্রের চাপ সত্ত্বেও সিরিয়ায় ইরানের সামরিক উপস্থিতি থাকবে। দামেস্কোয় তেহরানের সামরিক অ্যাটাশে আবুল কাসেম আলী নেজাদ বলেন, সিরিয়ার বিভিন্ন জায়গায় মাইন অপসারণ ও সামরিক কারখানা পুনর্স্থাপনে ইরান সহায়তা করবে।

বুধবার দামেস্কো তেহরানের সামরিক অ্যাটাশে আবুল কাসেম আলী নেজাদ ইরানের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা ইরনাকে এসব কথা বলেন।

তিনি তেহরান ও দামেস্কোর মধ্যে সহযোগিতা চুক্তি নিয়ে আলোচনা করেন। সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের সঙ্গে আলোচনা করতে ইরানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী শনিবার দামেস্কো সফর করেছেন।

এ সময় সিরিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে একটি সামরিক সহযোগিতা চুক্তি সই করেন। তবে চুক্তির বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করা হয়নি।

দুই দেশের সামরিক সহযোগিতার অংশ হিসেবে ইরানের সামরিক উপদেষ্টারা সিরিয়ায় অবস্থান করবে বলে আলী নেজাদ বলেন।

সাত বছরের গৃহযুদ্ধে বিধ্বস্ত সিরিয়াকে পুনর্নির্মাণ করতে ইরানের প্রভাবশালী বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর কয়েক হাজার সদস্যকে পাঠানো হয়।

গত সপ্তাহে মার্কিন নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন বলেন, সিরিয়া থেকে ইরানকে তার বাহিনী প্রত্যাহার করতে আহ্বান জানিয়েছে ওয়াশিংটন।

ইসরাইলের গণপ্রতিরক্ষামন্ত্রী গিলাদ ইরডান বলেন, ইরানের সেনাবাহিনীকে সিরিয়ায় রাখতেই এ চুক্তি করা হয়েছে। আসাদ বাহিনীকে নতুনভাবে গড়ে তুলতে সহায়তার কথা বলা হয়েছে অজুহাত হিসেবে। দামেস্কোর বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর অবস্থানকে বৈধ করতে চুক্তিটি মুখোশ হিসেবে ব্যবহার করা হবে।