সুনামগঞ্জে স্কুল ছাত্র ইমন হত্যামামলায় ৪ আসামীর মৃত্যুদন্ড

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬:৫৬ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৬, ২০১৯ | আপডেট: ৬:৫৬:অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৬, ২০১৯
ছবি : টিবিটি

সুনামগঞ্জের শিল্পনগরী ছাতকে চাঞ্চল্যকর স্কুলছাত্র ইমন হত্যা মামলায় চারজনের ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত।

মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- ছাতকের বাতিরকান্দি গ্রামের সালেহ আহমদ, রফিক, জায়েদ এবং ব্রাক্ষণ বাড়িয়া জেলার জুলিয়া গ্রামের সুজন।

মৃত্যু দন্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে সালেহ আহমদ পলাতক রয়েছেন।

বুধবার দুপুরে সিলেটের দ্রতবিচার ট্রাইব্যুনালের বিজ্ঞ বিচারক মো. রেজাউল করিম এ রায় ঘোষণা করেন।

আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট কিশোর কুমার কর রায় প্রদানের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, লোমহর্ষক এ ঘটনায় অভিযুক্তদের আদালত মৃতুদন্ড দিয়েছেন।

জানা যায়, ২০১৫ সালের ২৭ মার্চ ছাতক উপজেলার বাতিরকান্দি গ্রামের সৌদি প্রবাসী জহুর আলীর ছেলে মোস্তাফিজুর রহমান ইমনকে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবি করা হয়। ইমন লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট কারখানার কমিউনিটি স্কুলের শিশু শ্রেণীর শিক্ষার্থী ছিল।

পরে মুক্তিপণের টাকা না পেয়ে অপহরণকারীরা শিশু ইমনকে খুন করে।

মোবাইল ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে সিলেটের কদমতলী বাসস্ট্যান্ড থেকে ২০১৮ সালের ৮ এপ্রি ঘাতক ইমাম সুয়েবুর রহমান সুজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।
তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ছুরি, বিষের বোতল ও রক্তমাখা কাপড় উদ্ধার করে পুলিশ।

তার দেখানো মতে বাতিরকান্দি হাওর থেকে ইমনের মাথার খুলি ও হাড় উদ্ধার করা হয়।

চাঞ্চল্যকর এ মামলা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে ২০১৬ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর বিচারের জন্য সিলেট দ্রততবিচার ট্রাইব্যুনালে আসে।

২০১৮ সালের গত ২ আগস্ট থেকে মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়। ২৩ জনের সাক্ষ্যগ্রহণের পর যুক্তিতর্ক শেষে বুধবার এ মামলার রায় ঘোষণা করা হয়।,