সুনামগঞ্জে ১১ বছরের শিশুকন্যার আত্বহত্যা

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫:১৭ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১০, ২০১৯ | আপডেট: ৫:১৭:অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১০, ২০১৯

সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে বসতঘরের তীরের সাথে গলায় ওরনা পেছিয়ে তাসলিমা বেগম (১১) নামের এক শিশুকন্যা আত্বহত্যা করেছে।
রবিবার বিকেলে থানা পুলিশ ওই শিশু কন্যার লাশ উদ্ধারের পর জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

নিহত তাসলিমা উপজেলার শ্রীপুর উওর ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী বড়ছড়া গ্রামের কয়লা শ্রমিক ইসমাইল হোসেনের মেয়ে।

নিহতের পারিবারীক সুত্রে জানা যায়, উপজেলার বড়ছড়ার ইসমাইল হোসেনের শিশুকন্যা রবিবার বেলা ১২ টার দিকে পরিবারের সবার অলক্ষে বসতঘরের তীরের সাথে গলায় ওরনা পেছিয়ে আত্বহত্যা করে।, বড়বোনের এ অবস্থা দেখতে পেয়ে ৭ বছরের সহোদর ছোট বোন পার্শ্ববর্তী ট্যাকেরঘাট কোয়ারীতে কয়লা উক্তোলন কাজে থাকা বাবা-মাকে খবর দিয়ে বাড়ি নিয়ে আসে।

এরপর ইসমাইল দম্প্রতি পাড়া প্রতিবেশীর সহযোগীতায় থানা পুলিশে খবর দিলে পুলিশ বিকেলে এসে লাশ বসতঘর থেকে উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।

উপজেলার বড়ছড়ার কয়লা শ্রমিক ইসমাইল হোসেন রবিবার বিকেলে জানান, সকালে আমি ও আমার স্ত্রী বাড়ির পার্শ্বের কোয়ারীতে কয়লা তুলতে চলে যাই। এরপর বাড়ি থেকে রান্না করা সকালের নাস্তা নিয়ে তাসলিমা আমাদের নিকট গিয়ে নাস্তা পরিবেশন করে ফের বাড়িতে ফিরে আসে।  তিনি আরো বলেন, মেয়ে আমার কী কারনে এমন ভাব আত্বহত্যা করলো তাও আমি বা আমার পরিবারের লোকজন নিশ্চিত করে কিছু আপাতত বলতে পারছি না।

তাহিরপুর থানার এসআই পার্ডন সিংহ বললেন, প্রাথমিক তদন্তে আত্বহত্যার কোন সুনিদ্রিষ্ট কারন এখনো উদঘাটন করা যায়নি, সুরতহাল শেষে লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।,