‘সুন্দরবনের সম্পদ বিনষ্টকারীদের বিরুদ্ধে সরকার জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছে’

প্রকাশিত: ৬:৫৬ অপরাহ্ণ, জুলাই ২০, ২০১৯ | আপডেট: ৬:৫৬:অপরাহ্ণ, জুলাই ২০, ২০১৯
ছবি: টিবিটি

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার তালুকদার বলেছেন, প্রকৃতির উপর অত্যাচার করলে প্রকৃতি তার প্রতিশোধ নেয়। সেজন্য সুন্দরবনের জীববৈচিত্র্যসহ সম্পদ সুরক্ষায় সকলকে এগিয়ে আসতে হবে।

সুন্দরবনের বৃক্ষ ও মৎস্য সম্পদ বিনষ্টকারীদের বিরুদ্ধে সরকার জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহন করেছে। মোংলা পোর্ট পৌরসভাকে স্মার্ট সিটি হতে হলে একই সাথে গ্রীণ সিটি এবং ক্লিন সিটিও গড়ে তুলতে হবে।

জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুপ প্রভাব মোকাবেলয় বৃক্ষ রোপনের কোন বিকল্প নেই। তাই সবাইকে বেশী বেশী করে গাছ লাগাতে হবে। শনিবার সকালে মোংলার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে মোংলা পোর্ট পৌরসভার আয়োজনে মাসব্যাপী বৃক্ষ রোপণ কর্মসুচির উদ্বোধন কালে উপমন্ত্রী এ কথা বলেন।

শনিবার সকালে বাগেরহাটের মোংলা পোর্ট পৌর মেয়র মো. জুলফিকার আলী’র সভাপতিত্বে বৃক্ষ রোপন কর্মসুচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মোংলা উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হ্ওালাদার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুনীল কুমার বিশ্বাস ও মোংলা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মো. গোলাম সরোয়ার প্রমুখ্য। এসময় উপমন্ত্রী একটি জাম গাছের চারা রোপন করেন।

এরপর উপমন্ত্রী মোংলার চাঁদপাই ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে দুই শতাধিক শিক্ষার্থীর মাঝে স্কুল ব্যাগ ও ১ হাজার ৩৭২ জেলের প্রত্যেককে ৪০ কেজি করে মোট ৫৪ হাজার ৮শত ৮০ কেজি ভিজিএফ চাল বিতরণ করেন।