সুষ্ঠু নির্বাচনের ইতিহাসকে মুছে দিতে চাচ্ছে নির্বাচন কমিশন : রিজভী

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৮:৫৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২০ | আপডেট: ৮:৫৪:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২০
বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। ফাইল ছবি

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, জাতীয় সংসদের পাবনা-৪ আসনে আজকের উপ-নির্বাচনে এবং চাঁদপুর সদর পৌরসভার আসন্ন মেয়র নির্বাচনে কেন্দ্র করে সরকারি দল ব্যাপক সন্ত্রাস সৃষ্টি করেছে এবং পুলিশ নানা প্রকার মিথ্যা মামলা দিয়ে বিএনপি নেতা কর্মীদের গ্রেপ্তার করছে এবং এলাকা ছাড়া করছে।

শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব বলেন।

তিনি বলেন, পাবনা -৪ আসনের উপনির্বাচনে জলজ্যান্ত জালিয়তির ভিডিও ইতোমধ্যে ইউটিউব-এ ছড়িয়ে গেছে। আমরা এজন্যই বলে থাকি, বর্তমান প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা একজন বিবেকশূন্য মানুষ। সরকারের নির্দেশ মতো তিনি দেশ থেকে সুষ্ঠু নির্বাচনের ইতিহাসকে মুছে দিতে চাচ্ছেন এবং সেই নমুনাই এখন ফুটে উঠছে’।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের এক বক্তব্যের সমালোচনা করে করে রিজভী বলেন ‘বিএনপি’র ক্ষমতায় যাওয়ার অলি-গলি খুঁজবে কেন? বিএনপি তো অবৈধ সরকারের পতনের জন্য প্রশস্ত রাজপথেই আন্দোলন করছে।‘

রিজভী বলেন, ষড়যন্ত্র ও চক্রান্তের মাধ্যমে রাজোচিত জীবন নির্বাহ যাতে ব্যাহত না হয় সেজন্যই ওবায়দুল কাদের সাহেবরা কানাগলি দিয়ে কখনো বিনা ভোটে কখনো নিশিরাতের ভোটে ক্ষমতায় আসীন রয়েছেন। তারা ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়ে জনগণকে দুঃসহ জীবনযাপনে বাধ্য করে অবৈধভাবে ক্ষমতা ধরে রেখেছেন।

আওয়ামী লীগ এখন জনগণের কাছে এক আতঙ্কের নাম-এমন মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘শান্তিবিনাশী সমাজবিরোধীদের দাপট বৃদ্ধি পেয়েছে, কারণ এরা সরকারি দলের লোক।এই দুঃশাসনে জনগণের মধ্যে ক্রোধবহ্নি দাউদাউ করে জ্বলছে। এটা ইতিহাসে প্রমাণিত- অবৈধ শাসনের অবসান ঘটাতে জনগণের প্রতিজ্ঞা কখনোই নিষ্ফল হয়নি।

অবৈধভাবে ক্ষমতায় থাকা ওবায়দুল কাদের সাহেবরা মাঝে মাঝে দুঃস্বপ্ন দেখে হঠাৎ হঠাৎ আবোল-তাবোল বকতে থাকে। কারণ আওয়ামী লীগের ঐতিহ্যই হচ্ছে গণতন্ত্র ও জনগণের সাথে প্রতারণা করা। ওবায়দুল কাদের সাহেবের হুংকারসর্বস্ব বক্তব্য যেন অন্ধকার রাতে ভুতের ভয়ে আর্তচিৎকার ।’

রিজভী বলেন, ‘বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে আওয়ামী মন্ত্রীদের কপালে দুঃশ্চিন্তার ভাঁজ পড়েছে। বেশ কিছুদিন ধরে দেশী-বিদেশী গণমাধ্যমে আওয়ামী লীগের মুরুব্বী পরিবর্তন নিয়ে নানা আলোচনা চলছে। সুতরাং সব কুল হারিয়ে সরকার মনে হয় স্বস্তিতে নেই। বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে নানা জল্পনা-কল্পনা এড়াতেই তথ্যমন্ত্রী বিদেশে ষড়যন্ত্র তত্ত্ব আবিষ্কার করেছেন। ’