সৃজিতের আবেগঘন স্ট্যাটাস

টিবিটি টিবিটি

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫:৫৭ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৩, ২০২০ | আপডেট: ৫:৫৭:অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৩, ২০২০

শিল্পীর কাছে তাঁর সব সৃষ্টিই সন্তানসম। বড় আদর-যত্নে তাকে লালন-পালন করে বড় করে তোলেন একজন শিল্পী। একথা প্রযোজ্য ভারতীয় বাংলা সিনেমার গুণী নির্মাতা সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের জীবনেও। টলিপাড়ার প্রথম সারির পরিচালকদের মধ্যে একজন সৃজিত। বানিয়েছেন অসংখ্য সিনেমা। কোনওটা সুপারহিট। তো কোনওটা দর্শকের প্রশংসা পায়নি। কিছু ছবি বক্স অফিসে রমরমিয়ে ব্যবসা করেছে। কারও ক্ষেত্রে লাভের অঙ্কটা তেমন ভাল নয়। তবু সব ছবিই পরিচালকের কাছে সন্তানসম।

ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত এই নির্মাতা টলিউড ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে ১০ বছর পূর্ণ করলেন। ছোটবেলা থেকেই তার স্বপ্ন ছিল ফেলুদা নিয়ে কাজ করার। ‘ফেলুদা ফেরত’ নামে ওয়েব সিরিজ নির্মাণের মধ্য দিয়ে সেই ইচ্ছা পূরণ হয়েছে তার।

এরই মধ্যে শেষ হয়েছে এ সিরিজের শুটিং। শুটিংয়ের শেষ দিনে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন এই নির্মাতা। সৃজিত তার ফেসবুকে লিখেন—‘‘এ পর্যন্ত ১৭টি সিনেমা বানিয়েছি। আরো কয়েকটা বানাব। কিন্তু ‘ফেলুদা ফেরত’-এর শেষ দিন এসে বুঝতে পারলাম, আজ অবধি এই শুটিংই সবচেয়ে বেশি উপভোগ করেছি। অনেক দিনের ইচ্ছা পূরণ হলো এজন্য নয়! বরং কারণটা অন্য।’’

শৈশবের স্মৃতি হাতড়ে তিনি লিখেন, ‘শুটিংয়ে প্রতিদিন একটা রোগা, সহজ-সরল ছেলে আমার পাশে বসে মনিটরের সামনে চোখ রাখত। বছর পনেরোর ছেলেটা ভুল হলে ভ্রু বাঁকাত, আবার শট ঠিক হলে পিঠ চাপড়ে দিত। গল্পের বইয়ের পাতাগুলো রোজ জীবন্ত হয়ে উঠত। ওই ছেলেটি আমাকে পুরোনো দিনের কথা মনে করিয়ে দিত। ফেলুদার নতুন বইয়ের গন্ধ, প্রথমবার সেই বই পড়ার রোমাঞ্চ, সেই ত্রিমূর্তির সঙ্গে ভ্রমণচারণ, সব। কিন্তু শেষদিন যখন প্যাকআপ বললাম, ছেলেটি যেন কোথায় উধাও হয়ে গেল।’

‘ছিন্নমস্তা’ ও ‘যত কাণ্ড কাঠমান্ডুতে’ গল্প অবলম্বনে নির্মিত হয়েছে ‘ফেলুদা ফেরত’। এটি প্রযোজনা করছেন অভিনেত্রী কোয়েল মল্লিকের স্বামী সুরিন্দর ফিল্মসের নিসপাল সিং রানে।