সেনাপ্রধানকে অপসারণ : আর্মেনিয়ায় প্রেসিডেন্ট-প্রধানমন্ত্রী বিরোধ তুঙ্গে

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫:৪১ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২১ | আপডেট: ৫:৪১:অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২১

আর্মেনিয়ায় রাজনৈতিক সংকট আরও প্রকট রূপ নিয়েছে। গত বৃহস্পতিবার সেনাপ্রধানকে বরখাস্তের নির্দেশ দিয়েছিলেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নিকোল পাশিনিয়ান। তবে শনিবার এ সংক্রান্ত আদেশে অনুমোদন দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন আর্মেনিয়ার প্রেসিডেন্ট আর্মেন সারগসায়ান। অর্থাৎ, সেনাপ্রধানকে বরখাস্ত বা অপসারণে প্রধানমন্ত্রীর প্রয়াস প্রত্যাখ্যান করেছেন তিনি।

সেনাপ্রধানসহ ঊর্ধ্বতন সামরিক কর্মকর্তারা পাশিনিয়ানকে পদত্যাগের আহ্বান জানানোর পরই ওই বরখাস্তের নির্দেশ দেন সরকারপ্রধান। তবে প্রেসিডেন্টের সম্মতি না পাওয়ায় ওই নির্দেশের বাস্তবায়ন ভেস্তে গেছে।

শনিবার সারগসায়ান এক বিবৃতিতে বলেন, এ চাকরিচ্যুতিতে তার সমর্থন নেই। প্রেসিডেন্টের দপ্তর বলেছে, ‘প্রজাতন্ত্রের প্রেসিডেন্ট সাংবিধানিক ক্ষমতার মধ্যে থেকে এ খসড়া ডিক্রিটি আপত্তিসহ ফেরত দিয়েছেন।’

এতে আরও বলা হয়, বারবার ব্যক্তি বদলের মাধ্যমে এ রাজনৈতিক সংকটের সুরাহা আসবে না।

প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, গাসপারিয়ানকে চাকরিচ্যুত করার দাবি তিনি আবার প্রেসিডেন্টের কাছে পাঠাবেন।

ফেসবুক পোস্টে তিনি লিখেন, ‘প্রেসিডেন্টের এ সিদ্ধান্ত পরিস্থিতি শান্ত করতে কোনো ভূমিকা রাখবে না। হেড অব জেনারেল স্টাফকে চাকরিচ্যুত করার আবেদনটি প্রেসিডেন্টের কাছে আবার পাঠাচ্ছি। আশা করছি, প্রতিষ্ঠিত পদ্ধতির সঙ্গে সমন্বয় রেখে তিনি এতে স্বাক্ষর করবেন।

সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী পাশিনিয়ানের অবস্থান শক্ত নয়। এমনিতেই তিনি নিজের পদ ছাড়ার ক্রমবর্ধমান দাবির মুখে আছেন।

যেদিন প্রেসিডেন্ট প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্ত ফেরত দিলেন, সেদিনই রাজধানী ইয়েরেভানে পার্লামেন্টের বাইরে তৃতীয় দিনের মতো পাশিনিয়ানের পদত্যাগ দাবিতে প্রায় পাঁচ হাজার বিরোধী কর্মী-সমর্থক বিক্ষোভ করেন।

কেউ কেউ শিবির বানিয়ে রাতও কাটাচ্ছেন সেখানে। সূত্র: আলজাজিরা