‘সোমবারের মধ্যে যেকোনো কিছুই ঘটতে পারে’

টিবিটি টিবিটি

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ২:২১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১, ২০১৯ | আপডেট: ২:২১:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১, ২০১৯

ইউরোপীয় ফুটবলে দলবদলের সময় প্রায় শেষ। প্রায় সব ধরণের দলবদল শেষ হলেও নেইমারসহ বেশকিছু গুরুত্বপুর্ণ ট্রান্সফার নিয়ে এখনও চলছে নাটক। ঠিক এরই মধ্যে রহস্যময় ইঙ্গিত দিলেন রিয়াল মাদ্রিদ ম্যানেজার জিনেদিন জিদান। বললেন, “সোমবারের মধ্যে যেকোনো কিছুই ঘটতে পারে।”

এই ঘোষণার মাধ্যমে কিসের ইঙ্গিত দিলেন জিদান? তবে নাটকীয়তার ষোলকলা পূর্ণ করে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড থেকে পল পগবাকে ঠিকই ছিনিয়ে আনতে যাচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদ?

নাকি ‘অপেক্ষার’ নীতিতে চলা রিয়াল বার্সেলোনাকে হতাশ করে পিএসজি থেকে নিয়ে আসতে যাচ্ছে নেইমারকে?

ইউরোপের গ্রীষ্মকালীন দলবদলের দরজা বন্ধ হতে আর মাত্র দু’দিন বাকি। মানে ২ সেপ্টেম্বর সোমবার রাত ১২টায় বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ইউরোপিয়ান দলবদলের দরজা। এই শেষ মুহূর্তে এসে জিদান বেশ উচ্ছ্বসিত কণ্ঠেই ঘোষণা দিলেন, ‘সোমবারের মধ্যে ঘটতে পারে যেকোনো কিছুই।’

তার এই ইঙ্গিতটা যে নতুন কোনো খেলোয়াড়ের সঙ্গে রিয়ালের চুক্তির, সেটি স্পষ্টই। দলবদলের বাজারে খরচ করার জন্য এখনো রিয়ালের হাতে রয়েছে নগদ ১৫৫ মিলিয়ন ইউরো।

মৌসুম শুরুর মাস ছয়েক আগেই নতুন খেলোয়াড় কেনার পেছনে খরচের যে বাজেট করেছিল রিয়াল, তা থেকে এখনো এই টাকাটা রয়ে গেছে। জিদানের কথায় স্পষ্ট, হাতে থাকা টাকাটা রিয়াল হাতে রাখতে চায় না।

হাতের টাকা খরচ করে খেলোয়াড় কিনে দলের শক্তি বৃদ্ধিই করতে চাইছেন তারা। প্রশ্ন এখন এটা যে, এই টাকা দিয়ে বাকি দু’দিনের মধ্যে কাকে কিনবে রিয়াল? এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে গেলে প্রথমেই আসছে পল পগবার নাম। নেইমারও আছেন রিয়ালের রাডারে। তবে কোচ জিদানের পছন্দের তালিকায় তার স্বদেশি মিডফিল্ডার পগবাই এক নম্বরে।

জিদান এবং রিয়াল ফরাসি এই মিডফিল্ডারের পিছু নিয়েছে অনেক দিন আগেই। কোমর বেঁধে চেষ্টাও করছে। এরই মধ্যে কয়েক দফা প্রস্তাবও পাঠিয়েছে। কিন্তু, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে টলাতে পারেনি। আসলে রিয়ালের সেই প্রস্তাবগুলো ম্যানইউর মনঃপুত হয়নি। একের পর এক চেষ্টা বিফলে যাওয়ায় এই বিশ্বাসটাই জন্মেছে সবার মনে, এই গ্রীষ্মে অন্তত পগবাকে দলে ভেড়াতে পারছে না রিয়াল।

কিন্তু, দলবদল দরজা বন্ধের ঠিক আগ মুহূর্তে জিদানের ওই উচ্ছ্বসিত ঘোষণা, সম্ভাবনার সলতেটা আবার দাউ দাউ করেই জ্বেলে দিল।

জ্বেলে দিল পিএসজি ছেড়ে নেইমারের বার্নাব্যুতে আসার সম্ভাবনাও। নেইমারকে কেনার দৌড়ে রিয়ালের চেয়েও এগিয়ে ছিল তাদের চিরশত্রু বার্সেলোনা। কিন্তু, ব্রাজিলিয়ান এই তারকার জন্য বার্সেলোনার চতুর্থ প্রস্তাবটিও পিএসজি নাকচ করে দিয়েছে বলে খবর। এই খবরও ছড়িয়ে পড়েছে, পিএসজির উচ্চ দাম চাহিদা পূরণ করা সম্ভব নয় ভেবে বার্সেলোনা নেইমারের আশা ছেড়ে দিতে যাচ্ছে। মানে নেইমারকে কেনার প্রক্রিয়া থেকে বার্সা সরে দাঁড়ানোর দ্বারপ্রান্তে।

আর বার্সা সরে দাঁড়ানো মানেই রিয়ালের জন্য দরজা আরও বেশি উন্মুক্ত। কারণ, পিএসজি শত্রু বার্সেলোনার চেয়ে নেইমারকে রিয়ালের কাছে বিক্রি করতেই বেশি আগ্রহী। রিয়াল সভাপতি ফ্লোরেন্তিনো পেরেজেরে সঙ্গে পিএসজির কাতারি সভাপতি নাসের আল খেলাইফির সম্পর্কটা বন্ধুত্বের চেয়েও বেশি কিছু।

সেই সুসম্পর্কের বাঁধন আরও দৃঢ় করতেই পিএসজি নেইমারকে রিয়ালের কাছে বিক্রি করতে চায়। কিন্তু, নেইমার নিজে বার্সেলোনায় যেতে চাইছিলেন। সে কারণেই সম্ভাবনার দৌড়ে এগিয়ে ছিল বার্সা। বার্সা চুক্তির প্রক্রিয়া থেকে সরে দাঁড়ালে রিয়ালের পথে আর কোনো বাঁধাই থাকবে না।

এই অবস্থায় কোচ জিদান এটাও বললেন, একজন নয়, দু’দিনের মধ্যে দু’জনকেও কিনতে পারে রিয়াল!

রোববার ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে ম্যাচ রিয়ালের। এই ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে দলবদল প্রসঙ্গ উঠতেই জিদান বেশ উচ্ছ্বাসের সঙ্গে বলে উঠেন, ‘সোমবারের মধ্যে যেকোনো কিছুই ঘটতে পারে। একটা বোমা, দুইটা বোমা… তবে এই মুহূর্তে আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ হলো ভিয়ারিয়ালের ম্যাচটি।’

একটা বোমা, দুইটা বোমার কথা বলে জিদান কি পগবা-নেইমার, দু’জনের কথাই বুঝিয়েছেন?