স্কুলছাত্র অংকনকে নির্যাতনের ভিডিও প্রকাশ, ১৫ দিন পর লাশ উত্তোলন

প্রকাশিত: ৯:১৫ অপরাহ্ণ, জুন ৫, ২০২০ | আপডেট: ৯:১৫:অপরাহ্ণ, জুন ৫, ২০২০

রাজবাড়ীতে করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া স্কুলছাত্র অংকন দত্তের (১৩)’র লাশ ময়নাতদন্তের জন্য রাজবাড়ী পৌর মহাশ্মশানের সমাধি থেকে উত্তোলন করা হয়েছে।

শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে লাশটি উত্তোলন করা হয়।

স্কুল ছাত্র অংকন রাজবাড়ী পৌর এলাকার ভাজনাচালার বিপ্লব দত্তের ছেলে এবং সে অংকুর স্কুল এন্ড কলেজের সপ্তম শ্রেণীতে পড়ালেখা করতো।

জানা গেছে, গত ২১ মে করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যায় অংকন। তখন তার নমুনা সংগ্রহের পর রাজবাড়ী পৌর মহাশ্মশানের সমাহিত করা হয়। ২৪ মে অংকনের করোনার রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। ওই দিন অংকনকে নির্যাতন করা হচ্ছে এমন একটি ভিডিও দেখে তার বাবা দাবি করেন নির্যাতনের কারণেই তার ছেলে অংকনের মৃত্যু হয়েছে এবং গত ২৯ মে রাতে রাজবাড়ী সদর থানায় ভাজনচালা এলাকার ৩ জনকে আসামি করে অংকনের বাবা বিপ্লব দত্ত একটি মামলা দায়ের করেন। যার প্রেক্ষিতে শুক্রবার সকাল ১১টার দিকে রাজবাড়ী জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ হাবিবুল্লাহর উপস্থিতিতে অংকনের লাশ উত্তোলন করে ময়নাতদন্তের পর আবার সমাহিত করা হয়।

রাজবাড়ী জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ হাবিবুল্লাহ জানান, হিন্দু ধমীর্য় রীতিতে লাশ দাহ করার নিয়ম থাকলেও ছেলেটি প্রাপ্ত বয়ষ্ক না হওয়ায় সমাধি দিয়েছিল পরিবার। তার লাশ উত্তোলন করে ময়নাতদন্ত করা হয়েছে। রিপোর্ট আসার পর তার মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।

উল্লেখ্য,অংকনকে বিনা কারনে নির্যানতকারীরা তার মৃত্যুকে করোনায় মৃত্যু হয়েছে বলে প্রচার করেছিল। কারন অংকনের নির্যাতনের পর তার গায়ে জ্বর ও শ্বাসকষ্ট হয়েছিল।