স্যানিটাইজারের ব্যবসায় নামলেন সালমান খান

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫:০৬ অপরাহ্ণ, মে ২৭, ২০২০ | আপডেট: ৫:০৬:অপরাহ্ণ, মে ২৭, ২০২০

লকডাউনের সময় কখনও নতুন গান লঞ্চ করে, কখনও খাদ্য সামগ্রী দিয়ে শ্রমিকদের পাশে দাঁড়িয়ে ভক্তদের চমকে দিচ্ছেন সালমান খান। এ বার কোভিড ১৯-এর লড়াইয়ে স্যানিটাইজার এনে নিজের ব্র্যান্ডের উদ্বোধন করলেন ভাইজান।

সোশ্যাল মিডিয়ায় সালমান বলেন, আমি আমার নতুন গ্রুমিং এবং পার্সোনাল কেয়ার ব্র্যান্ড ‘এফআরএসএইচ’ চালু করছি। এটা আপনার, আমার, আমাদের সবার ব্র্যান্ড, যা আপনাদের কাছে সেরা পণ্য নিয়ে আসবে।

এখন সবচেয়ে জরুরি স্যানিটাইজার। তাই স্যানিটাইজার নিয়ে এলাম।এই স্যানিটাইজার এখন আপনারা আমার ব্র্যান্ডের ওয়েবসাইটে আর বেশ কিছু দিন পরে বিভিন্ন স্টোরেও পাবেন।এখন সুস্থ ও সচেতন থাকাই আমাদের সবচেয়ে বড় কাজ।

এই সময়ে স্যানিটাইজারের চাহিদা তুঙ্গে। পরিস্থিতির বিচার করেই ডিওডোর্যাান্ট আনার আগেই স্যানিটাইজার এনে সলমন নিঃসন্দেহে ছক্কা হাঁকালেন। সোমবার দেশজুড়ে পালিত হয়েছে ইদ-উল-ফিতর।

ইদের সময়ই মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল সলমনের নতুন ছবি ‘রাধে’। অক্ষয় কুমারের ‘লক্ষ্মী বম্ব’ ছবির সঙ্গে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের কথা ছিল! করোনা বদলে দিয়েছে পুরো পরিস্থিতিই।

সালমান অন্য ভাবে ব্যবসার কথা ভাবছেন। তিনি জানান, পরবর্তীকালে পারফিউম, ওয়াইপস নিয়ে আসবে এই সংস্থা। সোশ্যাল মিডিয়ায় সলমন যে ভিডিয়ো পোস্ট করেন তাতে দেখা যায় স্যানিটাইজারের গায়ে সলমনের ছবি।

৭২% শতাংশ অ্যালকোহল সমৃদ্ধ এই স্যানিটাইজারের ১০০মিলি বোতলের দাম ৫০টাকা আর আর ৫০০ মিলিগ্রাম বোতলের দাম ২৫০ টাকা।

সকলেই যাতে এই স্যানিটাইজার ব্যবহারের অভ্যেস করতে পারে সেই কথা মাথায় রেখেই সলমনের এই উদ্যোগ।

শুধু মানুষ নয়, পশুপাখিরাও মনে হয় নিজেদের মতো করে প্রতিশোধ নেওয়ার চেষ্টা করে। যেমন এই মহিষটি, যাকে সম্ভত তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে দৌড় করানো হচ্ছিল। আর সেও যেন প্রতিশোধ নিল পাঁচ ব্যক্তির উপর।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া এক ভিডিয়োয় দেখা যাচ্ছে, একটি চওড়া রাস্তা দিয়ে ছুটে যাচ্ছে মোষে টানা গাড়ি।

তাতে চেপে রয়েছেন পাঁচ জন। সামনের দু’জনের হাতে লাঠি। তাঁরাই মহিষটিকে নিয়ন্ত্রণ করছেন। এই গাড়িটির পাশে একই রকম আরও একটি গাড়ি দৌড়াচ্ছে। তাতেও দু’জন বসে রয়েছেন।

দু’টি গাড়ি রেষারেষি করে দৌড়ে চলেছে। গাড়ি দু’টির আরোহীরা ও সেই সঙ্গে পাশে ছুটে চলা কয়েকটি বাইকের সওয়ার কয়েক জন চিৎকার করতে করতে উৎসাহ দিচ্ছেন।