স্যার যুবদল না, যুবলীগ!

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১:১২ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯ | আপডেট: ১:১২:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯
সংগৃহীত

চাঁদাবাজি ও ক্লাব ব্যবসার নামে অবৈধ ক্যাসিনো পরিচালনার অভিযোগে যুবলীগ নেতাদের অফিসে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সাম্প্রতিক অভিযান নিয়ে বক্তব্য দিতে গিয়ে ‘স্লিপ অব টাং’ (ভুল শব্দ চয়ন) করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

শনিবার (২১ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টার দিকে ছাত্রদলের নতুন কমিটির উদ্যোগে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর পরে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলতে মির্জা ফখরুল বলেন, এই সরকার আকন্ঠ নিমজ্জিত হয়েছে দূর্নীতিতে।

তাদের উচ্চ পর্যায় থেকে তৃণমূল পর্যায় পর্যন্ত নেতাকর্মীরা এখন দুর্নীতিতে নিমজ্জিত। এখন তারই কিছু প্রমাণ আপনারা গত কয়েকদিন ধরে দেখছেন। একেবারে ঢাকা মহানগর থেকে শুরু করে ‘যুবদল, ছাত্রদল’ বলে ফেলেন বিএনপি মহাসচিব।

তখন ‘দুঃখিত’ বলে পরক্ষণেই তা সংশোধন করেন মির্জা ফখরুল। তিনি বলেন, যুবলীগ-ছাত্রলীগ থেকে শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত তারা সবখানেই ভয়াবহ দুর্নীতিতে নিমজ্জিত হয়েছে। দেশের জন্য জনগণের জন্য অত্যন্ত ভয়ংকর একটি পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

অন্যদিকে শনিবার (২১ সেপ্টেম্বের) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসা নিশ্চিতের দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধনে খন্দকার মোশাররফ হোসেন চাঁদাবাজি ও ক্লাব ব্যবসা এবং যুবলীগ নেতাদের নিয়ে বক্তব্য দিতে গিয়ে ‘স্লিপ অব টাং’ (ভুল শব্দ চয়ন) করেছেন।

তিনি বলেন, যুবলীগ নেতা শামীমের বাড়ি থেকে কোটি কোটি টাকা উদ্ধারের কথা বলতে গিয়ে দুই দফায় ‘যুবদলের নেতার বাড়িতে’ বলে ফেলেন বিএনপির এ নেতা। পরে তা সংশোধন করেন তিনি।

এ সময় পাশে দাঁড়ানো এক নেতা মোশাররফের কানের কাছে ফিসফিস করে বলেন, স্যার, যুবদল না যুবলীগ। তখন ‘আই এম সরি’ বলে খন্দকার মোশাররফ বলেন, যুবলীগের একজন নেতার অফিস থেকে নগদ কোটি টাকা এবং ১৭৫ কোটি টাকার এফডিআর ও ডলার উদ্ধার করা হয়েছে।