হাকালুকি পাড়ে অসাধু পাখি শিকারীর বিষটোপে মারা গেল ৩০০ হাঁস

অতিথি পাখি শিকারে বাঁধা দেয়াই কাল হল খামারীর

আব্দুর রব আব্দুর রব

বড়লেখা (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৯:৩৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৩০, ২০১৯ | আপডেট: ৯:৩৭:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৩০, ২০১৯

হাকালুকি হাওরের অসাধু পাখি শিকারীদের বিষটোপে এক খামারীর ৩০০ পাতিহাঁস মারা গেছে। বুধবার বিকেলে হাকালুকির দুধাই বিলের পাড়ে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী হাঁস খামারী সমছুল ইসলাম ৬ অসাধু পাখি শিকারীর বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

জানা গেছে, বড়লেখা উপজেলার মুর্শিবাদকুরা গ্রামের সমছুল ইসলাম একটি এনজিও সংস্থ্যা থেকে ঋণ নিয়ে ৫০০ হাঁসের খামার করেন। নিজের ছেলে ও একজন কর্মচারী নিয়ে তিনি হাঁসের লালন পালন করছেন। প্রতিদিন হাকালুকির বিভিন্ন বিলে হাঁসগুলো বিচরণ করে। হাঁসের ডিমের আয়েই পরিবারের ব্যয়, ঋণের কিস্তি ও কর্মচারীর বেতন হয়। বুধবার বিকেলে দুধাই বিলের পাড়ে হঠাৎ ৩০০ হাঁসের মৃত্যু ঘটে। এতে মাথায় বজ্রপাত পড়ার উপক্রম হয়েছে।

খামারী সমছুল ইসলাম অভিযোগ করেন, খুঠাউরা গ্রামের সুনাই মিয়া, মনা মিয়া, আনোয়ার হোসেন, ওয়াতির আলী, ছালিক আহমদ, আছাদ উদ্দিনসহ বিশাল একটি সিন্ডিকেট প্রতিদিন হাওরের বিভিন্ন বিলে ধানের সাথে বিষ মিশিয়ে অতিথি পাখি নিধন করছে। প্রায় ১ মাস আগে এসব অসাধু শিকারীদের বাঁধা নিষেধ করি। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে তারা আমার হাঁসের বিচরণ স্থলে বিষ মিশানো ধান ছিটিয়ে রাখে। এতে তার ৩০০ হাস মরে প্রায় ২ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। এখন কিভাবে ঋণের টাকা পরিশোধ করবেন আর পরিবার চালাবেন সে চিন্তায় দিশেহারা। তিনি অসাধু ৬ পাখি শিকারীর বিরুদ্ধে হাঁস মারার অভিযোগে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

বড়লেখা থানার ওসি মো. ইয়াছিনুল হক ৬ অসাধু পাখি শিকারীর বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ প্রাপ্তির সত্যতা স্বীকার করে জানান, দুইটি মৃত হাঁস ময়না তদন্তের জন্য উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তার নিকট পাঠানো হয়েছে।