পরাজয় ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করছে ইসরায়েল : হামাস

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:৫৫ অপরাহ্ণ, মে ১৮, ২০২১ | আপডেট: ৭:৫৬:অপরাহ্ণ, মে ১৮, ২০২১
ইসরায়েলের নির্বিচার হামলায় ধ্বংস্তূপে পরিণত হয়েছে গাজা

অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় বর্বর সামরিক আগ্রাসন সত্ত্বেও যুদ্ধবিরতি প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে প্রতিরোধ সংগঠনগুলোর পূর্বশর্ত মানতে দখলদার ইসরায়েল বাধ্য হবে বলে মনে করছে হামাস। ফিলিস্তিনের এই ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলনের অন্যতম মুখপাত্র আব্দুল লতিফ আল-কানু এমন মন্তব্য করেছেন।

তিনি আরো অভিযোগ করেন, যুদ্ধবিরতি প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে সংগ্রামী সংগঠনগুলোর পক্ষ থেকে যে পূর্বশর্ত দেওয়া হয়েছে, তা না মানার জন্য সময়ক্ষেপণ করছে তেল আবিব। একই সঙ্গে নিজেদের পরাজয় ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছে নেতানিয়াহু প্রশাসন।

পার্সটুডে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, সোমবার গাজায় এক বক্তব্যে হামাসের মুখপাত্র আরো বলেন, আজ হোক কিংবা কাল ইসরায়েল সরকারকে ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ সংগঠনগুলোর পূর্বশর্ত মেনে নিতেই হবে, সেটা তাদের পছন্দ হোক বা না হোক।

হামাসের অন্যতম মুখপাত্র আব্দুল লতিফ আল-কানু

আব্দুল লতিফ বলেন, ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ সংগঠনগুলোর সঙ্গে দিনের আলোতে পেরে উঠছে না দখলদার ইসরায়েলি বাহিনী। তাই গাজার বেসামরিক জনগোষ্ঠীর ওপর হামলার জন্য রাতের অন্ধকারকে বেছে নিয়েছে নেতানিয়াহুর প্রশাসন। এর মাধ্যমে বিশ্ববাসীর সামনে দখলদার ইসরায়েলের পাশবিক ও নৃশংস চরিত্র আরো একবার উন্মোচিত হয়েছে।

প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের মুখপাত্র আরো বলেন, ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু যদি মনে করেন যে, এ ধরনের কাপুরুষোচিত হামলার মাধ্যমে তিনি ফিলিস্তিনি সংগ্রামীদের শক্তি খর্ব করা যাবে তাহলে দিবাস্বপ্ন দেখছেন তিনি।

এদিকে, গত কয়েক দিনে গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলের নৃশংস হামলায় অন্তত ২৫০ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে প্রায় এক তৃতীয়াংশই শিশু। অন্যদিকে, ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ সংগঠনগুলোর নিক্ষিপ্ত রকেটের আঘাতে অন্তত ১০ ইসরায়েলি নিহত হওয়ার দাবি করা হয়েছে।