হাসপাতালের মধ্যেই স্ত্রীকে গলা টিপে হত্যাচেষ্টা

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:২০ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৮ | আপডেট: ১০:২১:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৮
প্রতীকী ছবি

হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে নিজেদের এক বছরের শিশু কন্যা। তাকে দেখতে যান মা। তবে সেখানে যাওয়ার পর স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া শুরু হয়।

পুলিশ বলছে, হাসপাতাল ভবনের মধ্যেই স্ত্রীকে মারধর শুরু করেন তার স্বামী। হাসপাতালের দেওয়ালে স্ত্রীর মাথা ঠুকে দেন তিনি। মাথা ফেটে রক্ত বের হতে থাকে। স্ত্রীকে গলা টিপে হত্যার চেষ্টা করেন তার স্বামী।

গত সোমবার দুপুরে ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের হাবড়া স্টেট জেনারেল হাসপাতালে। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে অভিযুক্ত স্বামীকে আটক করে নিয়ে যায়।

পরে স্ত্রীর অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতার করা হয় তাপস দাসকে। খুনের চেষ্টার মামলা করা হয়েছে তার বিরুদ্ধে। তাপসের বাড়ি স্থানীয় আক্রামপুর আর্দশপল্লী এলাকায়।

পুলিশ বলছে, তিন বছর আগে হরিণঘাটার কুলুমবেড়িয়া এলাকার বাসিন্দা সুমিতার সঙ্গে বিয়ে হয় তার। স্বামী- স্ত্রীর মধ্যে নানা বিষয় নিয়ে অশান্তি ছিল।

সুমিত্রার দাবি, তার ওপর শারীরিক-মানসিক নির্যাতন করতেন স্বামী। বাধ্য হয়ে সম্প্রতি তিনি স্বামী-কন্যাকে ছেড়ে বাপের বাড়ি চলে যান।

গত রবিবার অসুস্থ মেয়েকে তাপস হাসপাতালে ভর্তি করেন। সে কথা জানান সুমিত্রাকেও। খবর পেয়ে সুমিত্রা হাসপাতালে যান। সেখানেই আবারো কোনো এক বিষয় নিয়ে দু’জনের ঝগড়া শুরু হয়।

তাপস বলেন, সুমিত্রার আগে বিয়ে হয়েছিল। তা জেনেও আমি ওকে বিয়ে করেছিলাম। কিন্তু আমার সঙ্গে সে সংসার করতে চায়নি। সে কারণে দ্বন্দ্ব।