হিন্দু ধর্ম নিয়ে কটুক্তির অভিযোগে কুবি’র সেই শিক্ষার্থী আটক

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:২৩ অপরাহ্ণ, মে ২২, ২০১৯ | আপডেট: ৭:২৩:অপরাহ্ণ, মে ২২, ২০১৯

হিন্দু ধর্ম নিয়ে কটুক্তিমূলক বক্তব্য করার অভিযোগে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) আইন বিভাগের শিক্ষার্থী মইনুল ইসলাম আবিরকে আটক করেছে পুলিশ।

গত সোমবার (২০ মে) কুমিল্লা নগরীর পশ্চিম বাগিচাগাঁও এলাকা থেকে তাকে আটক করে পুলিশ। ময়নুলের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৮(১) এবং ৩১(১) ধারায় কুমিল্লা কোতোয়ালী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন কোতোয়লী মডেল থানার উপ পুলিশ পরিদর্শক খালেকুজ্জামান।

মামলাটি বর্তমানে তদন্ত করছে কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।

উল্লেখ্য, গত ১৮মে (শনিবার) বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিন্যান্স এন্ড ব্যাকিং বিভাগের দ্বিতীয় ব্যাচের শিক্ষার্থী জয়দেব চন্দ্র শীল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম ‘ভয়েস অব আমেরিকার’ ভেরিফায়েড পেইজে ইসলাম ধর্ম এবং মহনাবী (সা.) কে নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্য করেন।

এঘটনায় ১৯ মে জয়দেব চন্দ্র শীল কে কোতোয়ালী থানা পুলিশ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের একটি মামলায় আটক করে এবং একই দিন তাকে বিশ^বিদ্যালয় থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়। পরে ওইদিন রাতে বিশ^বিদ্যালয়ের বিভিন্ন গ্রুপে ‘শ্যামল চন্দ দাস’ নামের একটি ফেসবুক একাউন্টের একটি পোস্টের স্ক্রিনশট ছড়িয়ে পড়ে।

যাতে দেখা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী মো: ময়নুল হোসেন ওরফে মইনুল ইসলাম আবিরের একাউন্ট হতে একটি গ্রুপে হিন্দু ধর্ম নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্য করা হয়। এ স্ক্রিনশট ছড়িয়ে পড়ার পরপরই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ক্ষুব্দ হয়ে উঠে।

পরে ময়নুল দাবি করেন যে এই মন্তব্যটি তিনি করেননি কেউ তার নাম এবং ছবি ব্যবহার করে ভুয়া একাউন্ট খুলে এমন একটি মন্তব্য করে তাকে ফাঁসাতে চাচ্ছে। পরবর্তীতে স্ক্রিন শট ছড়ানোর কাজে ব্যবহৃত ‘শ্যামল চন্দ্র দাস’ নামক একাউন্টে দেখা যায় যে এই একাউন্টটির ইউজার নেইম ‘সড়ুহঁষরংষধস.ধনরৎ.৩৫’ এবং একাউন্টের অন্যান্য তথ্য ও সঠিক নয়।

ময়নুল দাবি করে যে তাকে ফাঁসিয়ে একটি সাম্প্রদায়িক সংর্ঘষ তৈরীর জন্যই একটি মহন ইচ্ছাকৃতভাবে তার নামে একাউন্ট খুলে তা দিয়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করার চেষ্টা করছে। ওই রাতেই ৩০-৪০ জন অজ্ঞাতনামা লোক ময়নুলের খুঁজে তার বাসায় যায় ।

এঘটনার পর সোমবার (২০ মে) মইনুল কুমিল্লা কোতোয়ালী মডেল থানায় নিরাপত্তা চেয়ে একটি সাধারন ডায়রী করতে যায়। পরে ২০ মে রাতেই তাকে কুমিল্লা নগরীর বাঁগিচাগাও এলাকা থেকে আটক করা হয়।

এ বিষয়ে কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নাসির উদ্দিন মৃধা জানান, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের একটি মামলায় মো: ময়নুল হোসেনকে আটক করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।