‘হিন্দু লাইভস ম্যাটার’ ব্যানারে ছেয়ে গেছে দিল্লি

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:৩০ পূর্বাহ্ণ, জুন ১১, ২০২১ | আপডেট: ১১:৩০:পূর্বাহ্ণ, জুন ১১, ২০২১

‘পশ্চিমবঙ্গে হিন্দুরা বিপন্ন; তাদের উপরে অত্যাচার হচ্ছে’ – এই অভিযোগ তুলে ভারতের রাজধানী দিল্লিতে তৃণমূল কংগ্রেসের সদর দপ্তরের বাইরে বিক্ষোভ দেখাল হিন্দু সেনা। সেই সঙ্গে ব্যানারও প্রদর্শন করল তারা। তাতে লেখা, ‘মমতা দিদি হিন্দু লাইভস ম্যাটার’।

বৃহস্পতিবার (১০ জুন) দুপুরে দিল্লির ৬১ সাউথ অ্যাভিনিউয়ে তৃণমূলের সদর দপ্তরের সামনে হাজির হয় হিন্দু সেনার কয়েকজন সমর্থক। তারা সেখানে বিক্ষোভ দেখায়। সেই সঙ্গে তাদের হাতে থাকা ব্যানার তারা দপ্তরের সামনে রেখে দিয়ে যায়।

একাধিক ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের ধবরে বলা হয়েছে, ভোটের পর থেকে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জায়গায় হিংসার ঘটনায় অভিযোগ তুলে সরব হয়েছেন বিরোধীরা। ভোট পরবর্তী পশ্চিমবঙ্গে যে হিংসা হয়েছে, তা মেনেও নিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিকে রাজ্যটিতে একাধিকবার সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার অভিযোগও উঠেছে। তবে বিজেপির সেই দাবি খারিজ করে দিয়েছে মমতার সরকার।

তবে অভিযোগ থামেনি। সেই আবহেই হিন্দুদের উপর ‘অত্যাচার’ বন্ধের দাবিতে দেশটির রাজধানীতে সরব হয়েছে হিন্দু সেনা কর্মীরা।

বিক্ষোভকারীরা এই বিষয়ে সংবাদমাধ্যমকে জানায়, পশ্চিমবঙ্গে হিন্দুদের উপর অত্যাচার চালানো হচ্ছে। সেই বিষয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে জাগাতে এই বিক্ষোভ প্রদর্শন।

উল্লেখ্য, এই প্রথম নয়। এর আগেও তৃণমূলের অফিসের সামনে বিক্ষোভ দেখিয়েছিল হিন্দু সেনা। ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জন্মজয়ন্তীর অনুষ্ঠানে ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি ওঠা নিয়ে বিতর্ক তৈরি হওয়ার পর হিন্দু সেনা পোস্টার লাগিয়ে দিয়ে গিয়েছিল ৬১ সাউথ অ্যাভিনিউয়ে অবস্থিত তৃণমূল কংগ্রেসের এই দফতরে। সেবার পোস্টারে লেখা ছিল, ‘ভারতে থাকতে হলে জয় শ্রীরাম বলতে হবে’।

হিন্দু সেনা নামের এই দক্ষিণপন্থী দলটি ২০১১ সালে স্থাপিত হয়। নয়াদিল্লিতে হিন্দু মহাসভা ভবনে তাদের সদর দপ্তর। ২০১৬ সালের জানুয়ারি মাসে পাকিস্তানের আন্তর্জাতিক বিমান সংস্থার দপ্তরে ভাঙচুর করে বিতর্কে জড়িয়েছিল তারা। সেবছরই মার্কিন নির্বাচনে ট্রাম্পের সমর্থনে প্রার্থনা করতে দেখা গিয়েছিল তাদের। ট্রাম্পের জন্মদিনও পালন করতে দেখা গিয়েছিল তাদের।

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস ও সংবাদ প্রতিদিন।