১১ বছর পর শিরোপা পুনরুদ্ধার করলো ইন্টার মিলান

টিবিটি টিবিটি

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬:৩৯ অপরাহ্ণ, মে ৩, ২০২১ | আপডেট: ৬:৩৯:অপরাহ্ণ, মে ৩, ২০২১

সমীকরণ ছিল সাস্সুয়োলোর মাঠে আতালান্তার পরাজয় অথবা ড্র, যাই হোক না কেন শিরোপা জিতবে ইন্টার মিলান। মিলে গেল তেমনটি, রোববার সাস্সুয়োলোর বিপক্ষে আতালান্তা ১-১ ড্র করায় মাঠে না নেমেই সেই দীর্ঘ ১১ বছর পর ইতালিয়ান সিরি’আ চ্যাম্পিয়নের মুকুট পরলো ইন্টার।

এর আগে ক্রোতোনের মাঠে গত শনিবার ২-০ গোলে জিতে শিরোপা জয় থেকে মাত্র ১ পয়েন্ট দূরে ছিল ইন্টার।

এনিয়ে ১৯তম বারের মতো লিগ শিরোপা জিতল ইন্টার। একই সঙ্গে শেষ হলো ইতালির শীর্ষ লিগে ইউভেন্তুসের ৯ বছরের আধিপত্যের।

সাস্সুয়েলোর মাঠে ম্যাচের ২২তম মিনিটে লাল কার্ড দেখেন আতালান্তা গোলরক্ষক পিয়েরলুইজি গোল্লিনি। তবে এক জন কম নিয়েও রবিন গোসেন্সের গোলে ১০ মিনিট পর এগিয়ে যায় আতালান্তা।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে দোমেনিকো বেরার্দির সফল স্পট কিকে সমতায় ফেরে স্বাগতিকরা। ৭৫তম মিনিটে ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার মার্লোন সান্তোস প্রতিপক্ষের লুইস মুরিয়েলকে ফাউল করে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখেন। পেনাল্টি পায় আতালান্তা। কিন্তু কলম্বিয়ার ফরোয়ার্ড মুরিয়েলের শট ঠেকিয়ে পয়েন্ট নিশ্চিত করেন সাস্সুয়োলো গোলরক্ষক।

সেই সঙ্গে উৎসব শুরু হয় ইন্টার শিবিরে। ২০০৯-১০ মৌসুমের পর কোচ আন্তোনিও কন্তের হাত ধরে আবারও ঘরোয়া লিগের মুকুট পরল ক্লাবটি।

সেরি আর সফল দলগুলোর তালিকায় ৩৬ শিরোপা নিয়ে সবার ধরাছোঁয়ার বাইরে ইউভেন্তুস। সমান ১৮ বার চ্যাম্পিয়ন হয়ে এতদিন দুই নম্বরে ছিল ইন্টার ও এসি মিলান। এবার এককভাবে দুইয়ে উঠল ইন্টার।

চার ম্যাচ হাতে রেখে ইন্টারের শিরোপা জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন দুই স্ট্রাইকার রোমেলু লুকাকু ও লাউতারো মার্তিনেস। এখন পর্যন্ত লুকাকু ২১ ও মার্তিনেস ১৫টি গোল করেছেন।

৩৪ ম্যাচে ২৫ জয় ও সাত ড্রয়ে চ্যাম্পিয়ন ইন্টারের পয়েন্ট ৮২। ১৩ পয়েন্ট কম নিয়ে দুইয়ে আতালান্তা। তাদের সমান ৬৯ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে এসি মিলান।

চার নম্বরে থাকা নাপোলির পয়েন্ট ৬৭।