১২০ কেজি স্বর্ণ খচিত নতুন গিলাফে ঢেকেছে কাবা

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:৪৯ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১১, ২০১৯ | আপডেট: ১২:৪৯:অপরাহ্ণ, আগস্ট ১১, ২০১৯

পবিত্র কাবায় নতুন গিলাফ পরানো হয়েছে। ইতিহাসে প্রথমবারের মতো এবার ফজরের নামাজের আগে কাবার গিলাফ পরানো হলো। এর আগে আরাফাতের দিন সকালে কাবা শরিফে নতুন গিলাফ পরানো হতো। এবার এর ব্যতিক্রম হলো। গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাতে গিলাফ পরিবর্তনের কাজ শুরু হয়, যা শেষ হয় আজ শনিবার ফজরের পর। জানিয়েছে সৌদি প্রেস এজেন্সি।

হজ মৌসুম এলে কাবার গিলাফকে নীচ থেকে ভাঁজ করে অনেকটা ওপরে তোলে গুটিয়ে রাখা হয় এবং ভাঁজকৃত গিলাফকে সাদা কাপড় দিয়ে মুড়িয়ে রাখা হয়। ফলে সারা বছর কালো গিলাফে আচ্ছাদিত গিলাফ দেখা গেলেও হজের সময় দেখা যায়, কাবা ঘরের খালি কিছু অংশ এবং কিছু অংশ সাদা কাপড়ে ঢাকা।

হজের দিন হাজিরা সব আরাফাতের ময়দানে থাকেন এবং মসজিদে হারামে মুসল্লিদের ভিড়ও থাকে কম। হজপালনকারীরা মিনা, মুজদালিফা ও আরাফাত থেকে ফিরে এসে কাবা শরিফের গায়ে নতুন গিলাফ দেখতে পাবেন।

কাবা শরিফের দরজা ও বাইরের গিলাফ দুটোই মজবুত রেশমি কাপড় দিয়ে তৈরি করা হয়। গিলাফের মোট পাঁচটি টুকরো বানানো হয়। চারটি টুকরো চারদিকে এবং পঞ্চম টুকরোটি দরজায় লাগানো হয়। টুকরোগুলো পরস্পর সেলাই যুক্ত।

এবারের গিলাফটি তৈরি করা হয়েছে সিল্কের ৬৭০ কেজি সুতা, স্বর্ণ ১২০ কেজি এবং রুপার ১০০ কেজি সুতা দিয়ে। কালো জমিনের ওপর অঙ্কিত হয়েছে সোনালি আরবি হরফে কোরআনের আয়াত। বাদশাহ আবদুল আজিজ কমপ্লেক্সে ১৬০ শিল্পী ও কারিগর এ গিলাফটি তৈরি করেছেন।

নতুন গিলাফ পড়ানোর সময় পুরনো গিলাফ সরিয়ে ফেলা হয়েছে। তা কেটে মুসলিম বিশ্বের সরকার প্রধানদের দেয়া হয় উপহার। এ অংশের ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশে রাজধানী ঢাকা বায়তুল মোকাররম মসজিদে গিলাফের একটি টুকরো টানানো রয়েছে।