১৪ বছর পর পাকিস্তানে পা রাখল দ.আফ্রিকা

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:৩৮ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৮, ২০২১ | আপডেট: ১২:৩৮:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৮, ২০২১

অপেক্ষার প্রহর ফুরালো পাকিস্তানের। কড়া নিরাপত্তার ভেতরে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দল পাকিস্তান সফর করছে। ২০০৭ সালে সবশেষ তারা পাকিস্তানে গিয়েছিল। ১৪ বছর পর কুক, ডু প্লেসিসদের দল পা রাখল পাকিস্তানে।

শনিবার ২১ সদস্যের দক্ষিণ আফ্রিকা দল পাকিস্তান পৌঁছে। কোভিড টেস্ট নেগেটিভ আসার পর রোববার তারা অনুশীলন শুরু করে। এ সফরে দুইটি টেস্ট ও তিনটি টি-টোয়েন্টি খেলবে দক্ষিণ আফ্রিকা। করাচি ও রাওয়ালপিন্ডিতে হবে টেস্ট সিরিজ। লাহোরে হবে টি-টোয়েন্টি সিরিজ।

২৬ জানুয়ারি করাচিতে প্রথম টেস্ট শুরু হবে। ২২ জানুয়ারি থেকে করাচি জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুশীলন করতে পারবেন ক্রিকেটাররা। এর আগে সফরকারীদের ঠিকানা জিমখানা গ্রাউন্ড। রোববার সেখানেই প্রায় তিন ঘণ্টা অনুশীলন করেন ক্রিকেটাররা।

অনুশীলন শেষে দক্ষিণ আফ্রিকা দলের মুখপাত্র বলেন, ‘আজ আমরা হাল্কা ট্রেনিং করেছি। খেলোয়াড়দের জড়তা কাটানোর চেষ্টা করেছি। ধীরে ধীরে তারা পুরোদমে অনুশীলন শুরু করবে।’

২০০৯ সালে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের ওপর সন্ত্রাসী হামলার পর দীর্ঘ সময় পাকিস্তান সফরে ছিল না কোনো আন্তর্জাতিক দল। ২০১৭ সাল থেকে ধীরে ধীরে পাকিস্তানে ক্রিকেট ফেরায় পিসিবি। শুরুতে তারা জিম্বাবুয়েকে দেশে আতিথেয়তা দেয়। এরপর পিএসএলের ম্যাচ আয়োজন করে।

২০১৯ সালে পিসিবি শ্রীলঙ্কাকে দুই টেস্টের জন্য আতিথেয়তা দেয়। দশ বছর পর পাকিস্তানে ফেরে টেস্ট ক্রিকেট। ২০২০ সালে বাংলাদেশ তিন টি-টোয়েন্টি ও এক টেস্ট খেলতে পাকিস্তান গিয়েছিল।

এবার দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দল পাকিস্তান সফরে। তাদের নিরাপত্তায় কোনো কমতি রাখছে না পাকিস্তান সরকার। রাষ্ট্রীয় অতিথির সম্মান ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা করা হয়েছে। নিরাপত্তা ব্যবস্থায় সন্তুষ্টির কথা জানিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার কোচ মার্ক বাউচার।

‘আমাদের নিরাপত্তা প্রতিনিধি দল আগে এখানে এসেছিল এবং সব কিছু বিবেচনা করার পর তারা জানিয়ে এখানে সফর করা নিরাপদ। এজন্য নিরাপত্তা নিয়ে আমাদের কোনো ভাবনা নেই। তাদের আয়োজনেও আমরা সন্তুষ্ট। এখন আমাদের খেলায় মনোযোগ দিতে হবে।’